আজ সোমবার ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ইং ৮ মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ শীতকাল ১৪ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম :
বিপিএলসহ আজকের খেলা গোপালগঞ্জের অপরিকল্পিত স্লুইসগেট কৃষকের গলার কাটা ইয়াবাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী আটক মাগুরায় ট্রাক চাপায় ১ কলেজ ছাত্র নিহত বন্দুকযুদ্ধে টেকনাফে মাদকবিক্রেতা নিহত আজ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ নাজমুল হুদার জামিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ওআইসি মহাসচিবের অভিনন্দন প্রতারণার অভিযোগে সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদ গ্রেফতার ভাসুরকে ফাঁসাতে নিজের এক মাসের শিশুকে হত্যা!  ‘বই মানুষের বিবেক শক্তিকে জাগ্রত করে’ চাঁদের মালিকানা  নিয়ে  দ্বন্ধ জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে হবে-প্রধানমন্ত্রী নৌবাহিনীর প্রধান আওরঙ্গজেব মেডিকেল কলেজের ছাদ ধ্বসে হতাহতের সহায়তা কাল নতুন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভা বৈঠক ডাকসু নির্বাচন : অছাত্রদের হল ছাড়ার নির্দেশ অটো রিক্সা খাদে: পুলিশকে গণপিটুনী নাগরিক অধিকার আন্দোলন’র সভা ভারতীয় দুই কবি যশোরে বাগেরহাটে  গার্লস স্কুলে গোপনে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ চর তাম্বুলপুরে নড়বড়ে সাঁকোই ভরসা খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুইজন  গ্রেফতার পরিবেশ রক্ষায় চার প্রতিষ্ঠানকে পদক প্রদান

আজ বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস

ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাঙালি বিজয় অর্জনের পর স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফেরেন।

বৃহস্পতিবার সেই ঐতিহাসিক দিন।

দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বাংলাদেশ স্বাধীন হয়। পাকিস্তানের শাসন-শোষণ ও অত্যাচার-নির্যাতনের হাত থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতা ও স্বাধিকার আন্দোলনের নেতৃত্ব

আন্দোলন-সংগ্রামের চূড়ান্ত পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণে বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন। ২৫ মার্চ কাল রাতে পাকিস্তানি বর্বর হানাদার বাহিনী বাঙালি জাতির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে গণহত্যা চালাতে শুরু করে। এ ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু তার ধানমন্ডির বাসভবন থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। এর পর পরই বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

শুরু হয় বাঙালির সশন্ত্র মুক্তিযুদ্ধ। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ চলতে থাকে। এ সময় বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি রেখে তার উপর নির্যাতন চালানো হয়। পাকিস্তানিরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার নানা পরিকল্পনা তৈরি করে। জেলের মধ্যে অত্যাচার নির্যাতনই শুধু নয়, তাকে ফাঁসির মঞ্চেও নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু দেশে-বিদেশে বঙ্গবন্ধুর জনপ্রিয়তা ও তার অদম্য সাহসের কাছে শেষ পর্যন্ত হারমানে পাকিস্তানের শাসক গোষ্ঠী এবং সেনাবাহিনী।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতেই বাঙালি জাতি বঙ্গন্ধুর আদর্শে ও নির্দেশিত পথে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ চালিয়ে যায়। যতোদিন যেতে থাকে যত রক্ত ঝরতে থাকে, স্বদেশের মাটিকে হানাদার মুক্ত করতে বাঙালি ততোই মরিয়া হয়ে উঠে। মুক্তিবাহিনী এবং মিত্রবাহিনীর যৌথ প্রতিরোধের মুখে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তান হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়।

পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতি বিজয় অর্জন করেন। মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ হন ও ৩ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম হারান। এতো রক্ত ও প্রাণের বিনিময়ে বিজয় এলেও মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি থাকায় বাঙালির অর্জিত বিজয় পূর্ণতা পায়নি। বিজয়ী বাঙালি জাতি উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে অপেক্ষা করতে থাকে তাদের নেতার ফিরে আসার।

মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জনের পর বিশ্বব্যাপী বঙ্গবন্ধু জনপ্রিয়তা আরও বাড়তে থাকে। বাঙালির পাশাপাশি বিশ্বের স্বাধীনতা ও শান্তিকামি মানুষও বঙ্গবন্ধুর মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠে। আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করে অবশেষে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান। কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু সোজা লন্ডন চলে যান। সেখান থেকে ভারত হয়ে ১০ জানুয়ারি স্বদেশে ফেরেন। সেদিন সারা দেশ থেকে মানুষ ছুটে আসেন তাদের নেতাকে একবার দেখর দেখার জন্য। স্বাধীন দেশে ফিরে বাঙালির ভালবাসায় সিক্ত হন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বিমানবন্দর থেকে লাখ লাখ জনতার জনসমুদ্র পাড়ি দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স) দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু তার বক্তব্যে বলেছিলেন, বাঙালি আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছে সেই বাঙালির জন্য আমি রক্ত দিতেও প্রস্তুত। এর মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় ৭৫ এর ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার পরাজিত শত্রু ও দেশি-বিদেশি চক্রের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে ঘাতকের হাতে স্বপরিবারে জীবন দেন।

স্বাআলো/আরবিএ

আজকের তারিখ

  • আজ সোমবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং
  • ৮ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ (শীতকাল)
  • ১৪ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
  • এখন সময়, দুপুর ১২:২১