শিরোনাম :
নগর পিতার আশ্বাসে তিনদিনের জন্য অবরোধ স্থগিত, বৈঠক সোমবার বাঘারপাড়ায় যুবলীগের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দুই উপজেলায় নির্বাচনী সংঘাতে রণক্ষেত্র চৌগাছায় হাটু থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার ডিজিটাল উপজেলা গড়তে তালা-ফুটবলে ভোট চাইলেন বিপুল সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে রবিবার থেকে মাঠে নামছে পুলিশ সিঙ্গাপুরে নিহত জনির মৃতদেহ চৌগাছায় পারিবারিক গোরস্থানে দাফন সড়ক দুর্ঘটনার শিকার নিপার সরকারি খরচে চিকিৎসা দাবি সুন্দরগঞ্জে গলা কাঁটা ব্রিজ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ  নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারী আইসক্রিম তৈরির ঘরোয়া পদ্ধতি শেখ হাসিনার আজীবন সদস্য পদে নুরুর ‘না’ বিআরটিএ’র বিভিন্ন পদে নিয়োগ মোবাইল ফোন চার্জের অভিনব পদ্ধতি রওশন এরশাদ এবার বিরোধী দলীয় উপনেতা স্বতন্ত্রদের নিয়ে নৌকা-লাঙলের প্রার্থীরা বিপাকে জামা্ইয়ের লাঠির আঘাতে শাশুড়ির মৃত্যু রাজনীতিতে যুক্ত হলেন সানি লিওন ‘চলতি বছরেই খুলনায় হাইটেক পার্ক নির্মাণ কাজ শুরু হবে’ বাগেরহাটে স্বামীকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা ‘১০ সহস্রাধিক নারীকে প্রযুক্তিতে দক্ষ করতে ২১ জেলায় প্রকল্প গ্রহণ’ চীনে কারখানায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৪ কুরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার কি? সুবর্ণচরে গণধর্ষণের আসামি রুহুলের জামিন বাতিল ওরিয়ন গ্রুপে সরাসরি সাক্ষাৎকারে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

ফেসবুকে এমপি মনিরুলের বিতর্কিত ভিডিও ভাইরাল

‘বিশেষ করিয়োগ্রাফি

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : শব্দযন্ত্রে বাজছে দেশের গান ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা, আমাদের এই বসুন্ধরা, তাহার মাঝে আছে দেশ এক, সকল দেশের সেরা’। এর সাথে ‘বিশেষ করিয়োগ্রাফি’র মাধ্যমে স্কুল বালিকারা মাল্য পরাচ্ছে যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলামকে।

এমন একটি ভিডিও নিয়ে পুরো যশোর জুড়ে নানা সমালোচনা শুরু হয় বিকালে। তবে সন্ধ্যার পর ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। যেখানে নানাভাবে এমন কর্মের সমালোচনার পাশাপাশি আয়োজক ও মাল্যগ্রহণকারীর রুচি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কেউ কেউ।

আরো পড়ুন>> এমপির সমাবেশে ছাত্রলীগ নিয়ে আ.লীগ নেতার বিতর্কিত মন্তব্য, প্রতিবাদ

জানা যায়, আজ বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) যশোরের চৌগাছা উপজেলার এবিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম। ওই অনুষ্ঠানে তাকে শিক্ষার্থীরা বরণ করে নেন ফুলের মালা পরিয়ে। এসময় তার সাথে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শাহজাহান কবির উপস্থিত ছিলেন। বিদ্যালয়টির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিএনপি নেতা ইউপি চেয়ারম্যান হাসান।

ভিডিওতে দেখা যায়, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলামসহ আমন্ত্রিতরা বসে আছেন। গান শুরু হয় ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা, আমাদের এই বসুন্ধরা, তাহার মাঝে আছে দেশ এক সকল দেশের সেরা’। তালে তালে হাতে ফুলের মানা নিয়ে মঞ্চের দিয়ে এগিয়ে আসছে একদল স্কুল ছাত্রী। এমপি মনিরুলসহ সবার সামনে একজন করে ছাত্রী দাঁড়িয়ে গেল। এরপর তারা নেতাদের সামনে নতজানু হয়ে বসে। এভাবে কয়েকবার ওঠবস করার পর তারা অতিথিদের মালা পরিয়ে বরণ করে নেয়। কাজটি নিখুতভাবে করতে পাশ থেকে এক শিক্ষককে ছাত্রীদের নির্দেশনা দিতে দেখা যায়। তবে অতিথিরা আপ্লুত হলেও সব ছাত্রীর মুখ ছিলো মলিন।

ফেসবুকে যত কথা

‘ব্যক্তিগত ভাবে আমি এই কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি। যদি বলেন কেন, তবে বলবো আমার পছন্দ হয়নি’ ক্যাপশন দিয়ে ভিডিওটি প্রথম ফেজবুক পেজে আপলোড করেন নাজমুল হোসেন নামে একজন।

এরপর সোহেল রাজ নামে একজন্য মন্তব্য করেন, ‘শিক্ষক নামের মহান পেশাকেও চামচামির চাদরে ঢেকে দিয়েছে আজ’

জবাবে নাজমুল হোসেন আবার লিখেছেন, ‘আমার রাগটাও ওই শিক্ষকদের ওপর বেশি। তারপর তথাকথিত এমপির ওপর। একজন শিক্ষিত মানুষ হয়েও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এরকম মালা নেওয়া দৃষ্টিকটু।’

নুসরাত মিতু নামে একজন মন্তব্য করেন, ‘এরা কি মুক্তিযোদ্ধা? নাকি এরাই দেশ? কি ভেবে কি কাজে কি উদ্দেশ্যে এটা করলো! যার কথায় এই কাজ হইছে তারে পুলিশে দেওয়া উচিত।’

নাজমুল হোসেন লিখছেন, ‘ওদের তো গার্ড দিয়ে রাখে পুলিশ। এমপি বলে কথা। তাদের আবার পুলিশে দিবে কে? বরং যে দিতে চাইবে তাকেই তো ধরবে।’

আহমেদ সবুজ নামে একজন লিখেছেন, ‘আবাল শুধু বাংলাদেশেই জন্মে। এত আবাল লইয়া আমরা কি করিব? একবার দেখলাম ছাত্রদের গায়ের/হাতের উপর দিয়ে শিক্ষক মশাই রওনা দিয়েছেন হেঁটে…।’

বাবলুর রহমান নামে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী ভিাডওটি  শেয়ার করে লিখেছেন, ‘ক্ষমতাসীনদের পদলেহনকারী শিক্ষক সমাজের নির্দেশনায় বিকৃত সংস্কৃতির এক প্রর্দশন এই ভিডিও।

এই ধরনের শিক্ষাব্যবস্থায় কেমন জাতি গঠন হবে তা সহজেই অনুমেয়!

ক্ষমতাসীনদের দয়ায় নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকরা না জানি ভবিষ্যৎ দিনগুলোতে কেমন ডিসপ্লের আয়োজন করে!’

তার নিচে মোল্লা হারুণ নামে একজন মন্তব্য করেছেন, ‘এখানে কি দেবতাদের পুজা করা হচ্ছে। ছি!’

শাহিন ইসলাম লিখেছেন, ‘সারাদেশে বিকৃত লোকে ভরে গেছে। রুচি জ্ঞান নাই।

সুমি রেকসনা পারভীন নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী হাস্যকরভাবে উপস্থাপন করে ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, ‘পুরাই আপ্লুত। কোরিওগ্রাফিতে কি চমৎকার এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের স্কুল!  যারা মালা বরণ করে ধন্য করলেন তারা আরো ধন্য করার ক্ষমতা অর্জন করুক!’

 

স্বাআলো/ডিএম

 

https://www.facebook.com/Maafi57/videos/1855842741195784/?t=98