শিরোনাম :
নগর পিতার আশ্বাসে তিনদিনের জন্য অবরোধ স্থগিত, বৈঠক সোমবার বাঘারপাড়ায় যুবলীগের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দুই উপজেলায় নির্বাচনী সংঘাতে রণক্ষেত্র চৌগাছায় হাটু থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার ডিজিটাল উপজেলা গড়তে তালা-ফুটবলে ভোট চাইলেন বিপুল সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে রবিবার থেকে মাঠে নামছে পুলিশ সিঙ্গাপুরে নিহত জনির মৃতদেহ চৌগাছায় পারিবারিক গোরস্থানে দাফন সড়ক দুর্ঘটনার শিকার নিপার সরকারি খরচে চিকিৎসা দাবি সুন্দরগঞ্জে গলা কাঁটা ব্রিজ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ  নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারী আইসক্রিম তৈরির ঘরোয়া পদ্ধতি শেখ হাসিনার আজীবন সদস্য পদে নুরুর ‘না’ বিআরটিএ’র বিভিন্ন পদে নিয়োগ মোবাইল ফোন চার্জের অভিনব পদ্ধতি রওশন এরশাদ এবার বিরোধী দলীয় উপনেতা স্বতন্ত্রদের নিয়ে নৌকা-লাঙলের প্রার্থীরা বিপাকে জামা্ইয়ের লাঠির আঘাতে শাশুড়ির মৃত্যু রাজনীতিতে যুক্ত হলেন সানি লিওন ‘চলতি বছরেই খুলনায় হাইটেক পার্ক নির্মাণ কাজ শুরু হবে’ বাগেরহাটে স্বামীকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা ‘১০ সহস্রাধিক নারীকে প্রযুক্তিতে দক্ষ করতে ২১ জেলায় প্রকল্প গ্রহণ’ চীনে কারখানায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৪ কুরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার কি? সুবর্ণচরে গণধর্ষণের আসামি রুহুলের জামিন বাতিল ওরিয়ন গ্রুপে সরাসরি সাক্ষাৎকারে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

যশোরে ম্যানসেল বাহিনীর বোমা হামলা: হরিজনদের বিক্ষোভ

যশোরে বোমাবাজি-সুইপারদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর: যশোরের শীর্ষ সন্ত্রাসী, একাধিক হত্যা মামলার আসামি ম্যানসেল বাহিনী চাঁদার দাবিতে হরিজন পল্লীতে বোমা হামলা চালিয়েছে। হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা এসময় রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেছে। দফায় দফায় বিক্ষোভ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। যশোর কোতয়ালি থানার ওসি ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে।

হরিজন পল্লীর বাসিন্দা রঞ্জন সরকার, সাধন, নিলয়, বাসন্তি জানান, স্টেশন এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী ম্যানসেল কয়েকদিন আগে হরিজন পল্লীতে মাদক ব্যবসা বন্ধ করার কারণ জানতে চান। সে সময় পল্লীর বাসিন্দারা কোন অবস্থায় মাদক বিক্রি করবে না জানিয়ে দিলে সে প্রতি সপ্তাহে (মাদক ব্যবসার লাভ বাবদ) দশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। হরিজনরা ওই চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করে। তখন হরিজন পল্লী নিশ্চিহ্ন করার হুমকি দিয়ে ম্যানসেল চলে যায়।

বাসন্তি রাণী, অমেলা রাণী, রঞ্জন, মালতি রাণী, শিলা রাণী জানান,  আজ রবিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে ম্যানসেল বাহিনীর সদস্য জাহিদ, সুমন, মেহেদি, রমজান, সাগর, নয়ন, রবিউলসহ ৭-৮জন হরিজন পল্লীতে আসেন এবং মাদক ব্যবসা করতে চাপ দেয়। বাসিন্দারা এসময় রাজি না হলে তারা দশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে সন্ত্রাসীরা অমেলা এবং বাসন্তিকে মারপিট করে। পল্লীর অন্য বাসিন্দারা এগিয়ে তারা প্রথমে দুটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমার শব্দ শুনে পাড়ার অন্যান্যরা ছুটোছুটি শুরু করলে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা হরিজন পল্লীর মন্দিরে বোমা হামলা চালায়।

ক্ষুদ্ধ বাসিন্দারা সবাই ঘর থেকে বের রাস্তার ওপর চলে আসে এবং বিক্ষোভ করতে থাকে। টায়ার আগুন ধরিয়ে ম্যানসেল বাহিনীর বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়ে   বিক্ষোভ করতে তাকে। সংবাদ পেয়ে কোতয়ালি থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। পরিস্থিতি শান্ত করার চেস্টা করে। মারপিট ও মন্দিরে হামলার ঘটনায় হরিজন সদস্যরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং বিক্ষোভ করতে করতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যান। সেখানে কয়েকদফা বিক্ষোভ করে তারা হরিজন পল্লীর সামনে রাস্তার ওপর জড়ো হয়।

আরো পড়ুন>> বাংলাদেশে প্রথম নারী মেজর জেনারেল সুসানে গীতি

বিকাল চারটার দিকে যশোর কোতয়ালি থানার ওসি অপূর্ভ হাসান ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের আশ্বাস দিলে তারা রাস্তা ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে অপূর্ব হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি স্বাধীন আলোকে বলেন, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক। দোষীদের আটকের জন্য পুলিশ অভিযানে আছে।

হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা অভিযোগে জানান, শীর্ষ সন্ত্রাসী ম্যানসেল দীর্ঘদিন ধরে স্টেশন এলাকায় মাদক ব্যবসা করে। ওই মাদক ব্যবসা না করলে তাদেরকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয় এবং মামলা দিয়ে নানা ভাবে হয়রানি করে।

ম্যানসেল বাহিনী শুধু হরিজন পল্লীতে নয়, স্টেশন এলাকার সব জায়গায় মাদক ব্যবসা করাচ্ছে। তাদের এ ব্যবসা না করলে তাদেরকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয় এবং মাদকসহ একাধিক মামলায় জড়িয়ে দেয়। তারা ম্যানসেল বাহিনীকে আটক করে দৃষ্টান্ত শাস্তি দাবি করেছেন।

স্বাআলো/এম