সাপের পেটে সাপ

নতুন প্রজাতির সাপ

ডেস্ক রিপোর্ট : সাপের পাকস্থলীতে নতুন প্রজাতির সাপ! অভূতপূর্ব ঘটনা। সাপ যে সাপ খায় তা প্রায় সবারই জানা। তাই সাপের পাকস্থলীতে আরেক সাপের খোঁজ পেয়ে প্রথমে গবেষকরা অবাক হননি। কিন্তু পাকস্থলী থেকে সেই সাপকে বের করে এনে পরীক্ষা করার পর গবেষকরা চমকে উঠলেন।

সাপের পেট থেকে যে সাপ পাওয়া গিয়েছে তার কোন প্রজাতির সাপ তেমন কোনো খোঁজ এর আগে পাওয়া যায় নি। নতুন প্রজাতির সাপের খোঁজ পেয়ে গবেষক দলের প্রত্যেকে উচ্ছ্বাসিত।

নতুন প্রজাতির সাপের নাম দেওয়া হয়েছে ‘মিসটেরিয়াস ডিনার স্নেইক’। আর এই নামটাও বেশ উপযুক্ত।

সরীসৃপ বিশেষজ্ঞদের ধারণা, সাধারণত অন্য প্রজাতির সাপ এই নতুন প্রজাতির সাপকে খাদ্য হিসাবে গ্রহণ করে। সেনাস্পিস অ্যানিগমা প্রজাতির সাপটি পাওয়া গিয়েছে মেক্সিকোর বনাঞ্চলে। অন্য একটি প্রজাতির সাপের পেটে খোঁজ মিলেছে তার। ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক-এর একদন গবেষক দীর্ঘদিন ধরে মেক্সিকোর ওই অঞ্চলে নতুন প্রজাতির সাপের খোঁজ করছিলেন। এর আগেও ওই বনাঞ্চল থেকে বেশ কয়েক প্রজাতির সাপের খোঁজ মিলেছে। কিন্তু এভাবে অন্য সাপের পেটে নতুন প্রজাতির সাপের খোঁজ এই প্রথম।

আরো পড়ুন >>>মহাকাশের রহস্য সংকেত আবিষ্কার

নতুন প্রজাতির সাপটি আকারগত পার্থক্য রয়েছে। বিশেষত এর লেজের নিচের অংশে রয়েছে অস্থিফলক। এছাড়া এই প্রজাতির সাপের মাথার আকৃতিও অন্যদের থেকে একটু আলাদা। টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের সরীসৃপ বিশারদ জোনাথন ক্যাম্পবেল জানিয়েছেন, এই ধরণের সাপ সাধারণত পোকা ও মাকড়শা খেয়ে বেঁচে থাকে। সাপটিক জীবিত অবস্থায় পাওয়া যায়নি। তাই এই প্রজাতির জীবনচক্র সম্পর্কে এখনও সম্যক ধারণা পাওয়া যায়নি। দশ ইঞ্চির মতো লম্বা এই সাপটিকে সংরক্ষণ করা হবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

স্বাআলো/এইসএম