‘প্রেমকে অস্বীকার করায় মুক্তাকে খুন করা হয়েছে’

মুক্তাকে খুন করা হয়েছে

জেলা প্রতিনিধি, ঝালকাঠি : প্রেমকে অস্বীকার করায় মুক্তাকে পরিকল্পিত ভাবে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নিশানবাড়িয়া গ্রামের আবদুস ছোবাহান মীরের ছেলে ও কলেজ ছাত্রী বেনজির জাহান মুক্তার হত্যা মামলার আসামি সোহাগ মীর।

আজ ঝালকাঠি পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সোহাগ মীরকে হাজির করে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হোসেন রেজা, নলছিঠি থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন, ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার।

আরো পড়ুন>> ঝালকাঠিতে কিশোরীর আত্মহত্যা

সংবাদ সম্মেলনে সোহাগের উদ্ধৃতি দিয়ে আরো জানানো হয়,দীর্ঘদিন ধরে মুক্তা সোহাগের সাথে প্রেম করার পর পরবর্তীতে তা অস্বীকার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সে গত ৪ ফেব্রুয়ারি মোবাইলে মুক্তাকে দুপুরে বাড়ি থেকে ডেকে এনে রাস্তার উপর কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়,ঝালকাঠি সরকারি মহিরা কলেজের বিএ (পাশ) প্রথম বর্ষের ছাত্রী বেনজির জাহান মুক্তাকে খুন হওয়ার পর তার পিতা নলছিঠি থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় সোহাগকে আসামি করা হয়।

মামলার পর র‌্যাব, পুলিশ ও ডিবি পুলিশের তিনটি টিম যৌথ ভাবে অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধার পর সোহাগকে নলছিঠির বারইকরণ গ্রামের তার আত্মীয় বাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। আটকের পর সোহাগ মুক্তা হত্যার কথা স্বীকার করে।

স্বাআলো/এম