নিজেই বানিয়ে নিন গোলাপের পারফিউম

পারফিউম

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রচুর কেমিকেল থাকায় পারফিউম আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। এর চাইতে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করা অনেক ভালো। হয়ত প্রস্তুত করতে একটু সময় লাগবে কিন্তু আপনার ত্বকে কোন কেমিকেল প্রভাব বিস্তার করবেনা, অন্তত এটা ভেবে নিশ্চিন্তে সেটা ব্যবহার করতে পারবেন।

গোলাপ ফুলের পাপড়ি এমন একটি উপাদান যা আপনি কোন দুশ্চিন্তা ছাড়াই সৌন্দর্যচর্চায় ব্যবহার করতে পারবেন আর আমাদের দেশে গোলাপ ফুল পাওয়া কোনো ব্যাপার না। যেকোনো ফুলের দোকানে পেয়ে যাবেন, আর নিজেদের গাছ থাকলে তো কোনো সমস্যাই নেই।

চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে পারফিউম বানাবেন :

উপাদান : 

• পানি ২ কাপ
• গোলাপের পাপড়ি কুঁচি ২ কাপ
• গোলাপ জল
• স্প্রে বোতল

পদ্ধতি :

২ কাপ পরিমাণ পানি একটি পাত্রে ঢেলে ঢাকনা দিয়ে খুব অল্প আঁচে চুলায় গরম করুন। পানি গরম হলে পাপড়িগুলো চুলায় রাখা পাত্রে ঢেলে দিন। পাপড়িগুলো রেখে দিন ভেতরে, এবং এমনভাবে রাখবেন যেন পাপড়িগুলো পুরো পুরি পানিতে ডুবে থাকে। যদি উপরে ভেসে উঠে তাহলে চামচ দিয়ে চেপে পানির নিচে রাখুন। ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট খুব অল্প আঁচে চুলায় দিয়ে রাখুন। খেয়াল রাখুন পানি যেন না শুকায়।

৩০/৪৫ মিনিট পরে একটি কাঁচের পাত্রে পাপড়িসহ পানি ছেঁকে নিন। যত টুকু সম্ভব পাপড়িগুলো চেপে চেপে পানি বের করে নিবেন। অল্প একটু গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। এবার একটি স্পে বোতলে ঢেলে নিন। আপনার পারফিউম এখন তৈরি।

পারফিউম

এটি ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করুন। বাইরে রাখলে পারফিউম নষ্ট হবেনা তবে গোলাপের ঘ্রাণ বেশি দিন থাকবেনা। তাই ফ্রিজে রাখলেই ভালো। এটি ব্যবহারের সুবিধা হলো যে আপনার শিশু-ও এটি ব্যবহার করতে পারবে যেহেতু এতে কোনো কেমিকেল নেই। তাছাড়া এতে কড়া ঘ্রাণ হবেনা যার ফলে আপনি অন্য কারও বিরক্তির কারণ হবেন না।

সতর্কতা :

• যতটুকু পানি নিবেন সব সময় ততটুকু পাপড়ি কুচি নিবেন। যেমন যদি ৪ কাপ পানি হয় তাহলে ৪ কাপ পাপড়ি কুচি নিতে হবে। কারণ পানি বেশি হলে পাপড়ির ঘ্রাণ নষ্ট হয়ে যাবে।

• পানি শুকিয়ে গেলেও ঘ্রাণ থাকবে না, তাই চুলায় অবশ্যই খুব অল্প আঁচে রাখতে হবে।

• যদি নিজের গাছ থেকেই ফুল নিয়ে থাকেন তাহলে সকালে নিবেন, এতে ঘ্রাণ বেশি থাকবে।

• পাপড়ি অবশ্যই ধুয়ে নিবেন, পাপড়ি ধুলে ঘ্রাণ চলে যাবেনা।

স্বাআলো/এইসএম