নববর্ষের প্রভাব ইলিশের বাজারে আগুন

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলা বর্ষবরণ উপলক্ষে ইলিশের বাজার জমে উঠেছে। আর মাত্র দুইদিন পরেই বাঙালির ঐতিহ্যময় উৎসব পহেলা বৈশাখ।

আজ ১২ এপ্রিল শুক্রবার রাজধানীর বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা যায়, সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় বাজারে ক্রেতা সমাগম বেশি। ইলিশের উপস্থিতি ও বিক্রি দুটোই বেড়েছে। ইলিশের পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। ক্রেতাদের কাছে টানতে বিক্রেতারা হাক ডাক দিচ্ছেন।

একদিকে চাহিদা বৃদ্ধি ও অন্যদিকে ইলিশ আহরণ বন্ধ থাকায় বাজারগুলোতে আকাশছোঁয়া দাম। দাম আরো বাড়বে বলে জানিয়েছেন মাছ ব্যবসায়ীরা।

সেক্ষেত্রে বলা যায় নববর্ষকে কেন্দ্র করে আগুন লেগেছে ইলিশের বাজারে। বাজারে এক কেজির কিছু বেশি ওজনের একটি ইলিশের দাম চাওয়া হচ্ছে ২৫০০ থেকে ৩০০০ হাজার টাকা। যা সপ্তাহখানেক আগেও ১৫০০ হাজার টাকার কাছাকাছি ছিল।

বাজারে ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের প্রতিটি ইলিশের দাম দুই হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা। এই ওজনের ইলিশ কিছুদিন আগেও এক হাজার থেকে এক হাজার ৪০০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।

তাছাড়া নদীর ৯০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি ওজনের প্রতি কেজি ইলিশ ৩০০০ হাজার টাকা চাওয়া হচ্ছে। এক কেজি ১০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের বড় ইলিশও কিছু বাজারে দেখা গেছে। দাম চাইছে প্রতি কেজি ৪০০০ হাজার টাকা।

আর দেড় কেজি বা দুই কেজির কাছাকাছি ওজনের ইলিশের প্রতি কেজির দাম চাওয়া হচ্ছে সাড়ে ৫০০০ হাজার টাকা। ৫০০ গ্রামের নিচে এক হালি ইলিশের দাম ৩০০০ হাজার টাকা।

কিন্তু বার্মিজ ও সাগরের ইলিশ এবং জাটকার দাম তুলনামূলকভাবে কম। তাই নিম্নবিত্ত এবং মধ্যবিত্ত শেণির মানুষজন জাটকাতেই খুঁজে ফিরছেন ইলিশের গন্ধ।

স্বাআলো/এসএ