এবার যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

জেলা প্রতিনিধি, জয়পুরহাট: শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির অভিযোগে জয়পুরহাটের দাদরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেই প্রধান শিক্ষক নুর আলমকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভাগীয় উপ-পরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আশরাফুল কবীর।

তিনি জানান, জয়পুরহাট সদর উপজেলার দাদরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর আলমের বিরুদ্ধে স্কুল শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠলে অভিভাবকের পক্ষ থেকে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। পরে জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার পর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভাগীয় উপ-পরিচালক আবুল কালাম আজাদ স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

জয়পুরহাট সদরের জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন দাদড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০১৫ সালের ২৫ মার্চ প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন নূর আলম। অভিযোগ রয়েছে, এই বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকেই কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন কৌশলে যৌন হয়রানি করতে থাকেন এই প্রধান শিক্ষক। বিষয়টি কেউ কেউ তাদের অভিভাবকদের জানালে, লোকলজ্জার ভয়ে ঘরোয়াভাবে তাকে সতর্ক করে আসছিলেন অভিভাবক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

সবশেষ ২৩ এপ্রিল এক শিক্ষার্থীকে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ের তালা খোলার জন্য চাবি নিয়ে আসতে বলে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে হাত দেয়। এ ঘটনা ওই ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবাকে জানালে এলাকায় হৈচৈ পড়ে যায়। পরে অভিভাবকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে অবরুদ্ধ করে রাখে।

অভিযোগ রয়েছে, ইতিপূর্বে তিনি যে বিদ্যালয়ে ছিলেন, সেখানে তাকে এই রকম অপরাধে এক লাখ টাকা জরিমানা পর্যন্ত গুনতে হয়েছিল।

স্বাআলো/এসএ