অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ভেঙ্গে পড়ছে ব্রিজ

অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ভেঙ্গে পড়ছে ব্রিজ

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা : বরগুনার তালতলীতে ছোটবগী ও পাঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের খাল থেকে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালী মহল। দীর্ঘদিন ধরে বালু উত্তোলন করায় ছোট বগী পিকে স্কুলের ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ছে। আবার আশপাশের বাড়িঘর ও ফসলি জমি হুমকির মুখে পড়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গত চার-পাঁচ মাস আগে অবৈধ ও অপরিকল্পিত ভাবে ব্রিজটির পাশ দিয়ে জামাল ফকির নামের এক ব্যক্তি ড্রেজার দিয়ে বালি উত্তোলন করে। তার বাড়ির পুকুর-ডোবা ভরাট করতে গিয়ে পি,কে স্কুলের বগীর খালের বালু উত্তোলন করার ফলে ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ছেন বলেন জানান এক স্কুল শিক্ষক। উপজেলার ছোটবগী ও পচাঁকোড়ালিয়া ইউনিয়নের দুটি খালের উপরে ১৯৯১ সালে তৎকালীন সাংসদ প্রয়াত  মজিবর রহমান তালুকদার সেতুটি নির্মাণ করেন। সেতুটি নির্মিত হওয়ায় প্রতিনিয়ত ৫  হাজারও বেশি পথচারীদের দুর্ভোগের কমে অন্য দিকে পাঁচটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বাশেঁর সাঁকো পারাপারের জনদূর্ভোগের অবসান ঘটেছিল।

বিজ্রের  পাশেই উপজেলার  ছোটবগী পি, কে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও পি,কে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭/৮শতাধিক কোমলমতি শিক্ষার্থীদের এখন স্কুলে আসা-যাওয়ার নদী পারাপার ব্যবস্থ্যা এখন হুমকির মুখে পড়ছে।

আরো পড়ুন>> নার্স তানিয়ার ধর্ষণকারীদের ফাঁসির দাবীতে বরগুনায় মানববন্ধন

স্কুলের একাধিক শিক্ষার্থীরা জানান, এই ব্রিজটির কারনণ আমরা ঠিক সময় স্কুলে যেতে পারছিনা অনেক পথ ঘুরে তার পরে স্কুলে যেতে হয়। সরকারের কাছে জোর দাবি এই ব্রিজটি সংস্কার করে দেয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিকে স্কুলের সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেন চুন্নু জানান, স্থানীয় আব্দুস ছত্তার ফকিরের ছেলে জামাল ফকির তার ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্য স্কুল সংলগ্ন ছোটবগী খাল থেকে বালি উত্তোলন করে তার বাড়ির পুকুর-ডোবা ভরাট করতে গিয়ে পি,কে স্কুলের বগীর খালের উপরস্থ ব্রিজের  ক্ষতি সাধন করেন।

এবিষয় অভিযুক্ত জামাল ফকিরকে মুঠো ফোনে একাধিক বার ফোন করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

তালতলী উপজেলা নিবার্হী অফিসার দীপায়ন দাস শুভ জানান, যারা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার ফলে ব্রিজটি ভেঙ্গে গেছে। তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে  অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্বাআলো/এম