খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ভাইও মারা গেছে

খুলনা ব্যুরো: প্রাইভেটকার এবং মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরুতর আহত মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মাহিন আলম মারা গেছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (খুমেক) আইসিইউতে  লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। খুমেকের আই‌সিইউ কর্তব্যরত চি‌কিৎসক মৃত্যু বিষয‌টি নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছেন।

শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে মহানগরীর তেলিগাতী বাইপাসের বড়ইতলায় প্রাইভেটকার এবং মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল চালক ওমর ফারুক হৃদয়  ও শাহিন আলম নিহত হয়। নিহত শাহিন আলম ও মাহিন আলম জমজ দুই ভাই। মোটরসাইকেল চালক ওমর ফারুক তাদের প্রতিবেশি।

ফুলবাড়িগেট তাহফিজুল সুন্নাহ হিফয্ মাদ্রাসার (হেফয্ বিশেষ) শাখার ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল মাহিন আলম ও শাহিন আলম।  মাহিনের বাসা দৌলতপুর থানার আমতলা মোড় আঞ্জুমান রোড এলাকায়। তার বাবা খুলনা রেল পুলিশের এএসআই খুরশিদ আলম।

মাহিন আলমের প্রতিবেশি পলাশ হোসেন বলেন, গুরুতর আহত মাহিনকে খুলনা মেডিকেলের আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। রাতে মাহিন আলম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। দুই ভাইয়ের মরদেহ সকালে তাদের দৌলতপুরের বাসায় আনা হয়েছে।

এদিকে জমজ দুই ছেলে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন মা-বাবা ও স্বজনরা। সকালে মরদেহ আনা হলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

স্বাআলো/এসএ