কোন রাশি প্রেমের সম্পর্ক বেশি মজবুত হয়

ডেস্ক রিপোর্ট: জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী জানা যায়, কোন কোন রাশির মধ্যে প্রেম হলেও সম্পর্ক বিয়ে পর্যন্ত যায় না, বা বিয়ে হলেও সেটা খুবই অশান্তির হয়। আবার কোনও কোনও রাশি আজীবন সুখে-শান্তিতে বসবাস করে।

জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে, বিশেষত প্রেম ও সম্পর্কের মতো অনিশ্চয়তার ক্ষেত্রে কোন রাশির মানুষ কেমন তা জানাটা আমাদের একটু হলেও স্বস্তি দিতে পারে।

আপনার রাশির সঙ্গে অন্য কোন রাশির মানুষের সম্পর্ক কেমন হতে পারে রাশি অনুযায়ী জেনে নিন:

তুলা: মিথুনের সঙ্গে সম্পর্কে বেশ স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে তুলা। এই সম্পর্কে একটা হালকা ভাব থাকে, যা দু’জনেরই মনকে করে তোলে ফুরফুরে। কুম্ভের সঙ্গে সম্পর্কেও এই স্বাচ্ছন্দ্য বজায় থাকে। তবে কুম্ভের সঙ্গে থাকলে নতুন নতুন অভিজ্ঞতা যাচাই করে দেখার সাহস পায় তুলা। একটু অন্য রকম প্রকৃতির সিংহ রাশির মানুষের সঙ্গেও তুলার সম্পর্ক বেশ জমে ওঠে। এই জুটির বিবাহিত জীবনও হয় মধুর। ধনুর সঙ্গে তুলার সম্পর্ক হয় একটু অন্য রকম, স্বাভাবিক প্রেমের চেয়ে ভিন্ন স্বাদের। মকর এবং কর্কটের আশেপাশে তেমন একটা না ঘেঁষাই ভাল তুলার জন্য। আর তুলার একেবারে উল্টো রাশি হলো মেষ। খুব চেষ্টা করলে এর সঙ্গে আপনার প্রেম হতেও পারে। কিন্তু তা করতে গিয়ে জীবনটা জ্বলে-পুড়ে ধ্বংস হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাই বেশি।

বৃশ্চিক: কর্কট এবং মীন রাশির সঙ্গে খুব ভাল মেলে বৃশ্চিকের। বৃশ্চিকের জীবনে নতুন সম্ভাবনা নিয়ে আসে কর্কট। সে কারণে তাঁকে নিজের জীবনে পাকাপাকি জায়গা দিতেও আগ্রহী হয় বৃশ্চিক। বৃশ্চিকের চরিত্রের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে বলে মীনের সঙ্গেও স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে থাকে বৃশ্চিক। এই দুই রাশির সঙ্গে তুলার দীর্ঘস্থায়ী প্রেম এবং বিবাহিত জীবনের সম্ভাবনা ভাল। এ ছাড়াও শান্তিপ্রিয় কন্যা এবং মকর রাশির সঙ্গেও সম্পর্কে সুখী হয় বৃশ্চিক। সিংহ এবং কুম্ভের সঙ্গে একেবারেই মেলে না বৃশ্চিকের। আর বৃষ রাশির সঙ্গেও সম্পর্কে দেখা যায় টানাপড়েন।

ধনু: মেষ এবং সিংহের মতো শক্তিশালী চরিত্রের সঙ্গী পছন্দ করে ধনু। সিংহের সঙ্গে সম্পর্কে নিজের জীবনের মান উন্নত করতে শেখে ধনু। আর মেষের সঙ্গে সম্পর্কে তিনি শেখেন কী করে আরও স্বাধীন হওয়া যায়। তুলার সঙ্গে মোটামুটি ভাল সম্পর্কে স্থায়ী হতে পারে ধনু। কুম্ভের সঙ্গেও তাঁর তৈরি হতে পারে অদ্ভুত, সাধারণের চেয়ে আলাদা এক সম্পর্ক। মেষ এবং কর্কটের সঙ্গে সম্পর্কে ঝামেলা হতে পারে।

মকর: শান্তিপূর্ণ এবং সফল জীবনের জন্য মকরের আদর্শ সঙ্গী হল কন্যা। এক সঙ্গে থাকলে জীবনে অনেক কিছু অর্জন করতে পারবেন এঁরা। বৃষের সঙ্গেও ভাল বনিবনা হয়ে থাকে তাঁর। তাঁদের মাঝে বোঝাপড়ার পরিমাণ ভাল। এ ছাড়াও বৃশ্চিক এবং মীনের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারেন মকর। তুলা এবং মেষ রাশির সঙ্গে সম্পর্কে না জড়ানোই ভাল। কর্কটের সঙ্গে সম্পর্কে দমবন্ধ হয়ে আসতে পারে মকরের এবং সেই সম্পর্ক টেকেও না বেশি দিন।

কুম্ভ: কুম্ভ এবং মিথুন রাশির প্রেমের মূল ভিত্তি হবে বন্ধুত্ব। তাঁরা দু’জনেই যথেষ্ট সামাজিক এবং শক্ত একটা বন্ধুত্বের ভিতের ওপর গড়ে উঠতে পারে মিষ্টি এবং দীর্ঘস্থায়ী একটি সম্পর্ক। তুলার সঙ্গেও সহজেই সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারবেন কুম্ভ। এই সম্পর্কের ভিত্তি হবে পারস্পরিক বিশ্বাস এবং বোঝাপড়া। ওপর দিকে মেষ এবং সিংহও হতে পারে কুম্ভের ভাল সঙ্গী। আপনার যদি মনে হয়ে থাকে সম্পর্কে একটু দূরত্ব ও স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখবেন, তবে ধনু হতে পারে কুম্ভের আদর্শ সঙ্গী। বৃষ এবং বৃশ্চিক এই দুয়ের সঙ্গে সম্পর্কে খাপ খাওয়াতে পারেন না কুম্ভ।

মীন: সুখি বিবাহিত জীবনের লক্ষ্য থাকলে বৃশ্চিক এবং কর্কট উভয় রাশি হয়ে উঠতে পারে মীনের জন্য আদর্শ। যদি তার চাইতেও গভীর প্রেম খুঁজতে চান, তবে খুঁজে নিন মকর রাশির সঙ্গী। তার সঙ্গে আপনার মৃত্যুঞ্জয়ী প্রেম গড়ে ওঠা সম্ভব। বৃষ রাশির সঙ্গেও চমৎকার সম্পর্ক গড়ে উঠতে পারে মীনের। সুখী জীবন চাইলে দূরে থাকুন মিথুন এবং ধনুর থেকে।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author