ফারুক হত্যা মামলায় আদালতে সাঈদী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হত্যার মামলায় জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীসহ ১০৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার ১১টায় দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকে হুইল চেয়ার করে রাজশাহীর অতিরিক্ত মহানগর ও দায়রা জজ আদালতে প্রাঙ্গণে আনে পুলিশ। শুনানি শেষে ১২টার দিকে আদালত থেকে তাকে আবার কারাগারে নেওয়া হয়।

রাজশাহীর অতিরিক্ত মহানগর দায়রা ও জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট শিরাজি শওকত সালেহীন জানান, মামলায় মোট আসামির সংখ্যা ১০৭ জন। ২০১২ সালের জুলাই মাসে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, ‘মামলার ৬০ জন আসামি জামিনে আছেন। বাকিরা পলাতক। এ মামলায় সাঈদীরও জামিন রয়েছেন। তবে অভিযোগ গঠনের সময় আসামিদের হাজির থাকতে হয়। তাই সাঈদীকে রাজশাহী আনা হয়।’

এদিকে সাঈদীকে আদালতে তোলা নিয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ব্যাপক জোরদার করা হয়। আদালত চত্বরের কয়েকটি স্থানে তল্লাশি চালায় পুলিশ ও ডিবি পুলিশ। তল্লাশি ছাড়া কাউকেই প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

জানা গেছে, ২০১০ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি রাবিতে গভীর রাতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় ছাত্রশিবির। এসময় ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হত্যা করে ম্যানহোলের ভেতরে ঢুকিয়ে রাখা হয়।। এ ঘটনায় রাবি ছাত্রলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক মাজেদুল ইসলাম অপু বাদী হয়ে নগরীর মতিহার থানায় মামলা করেন।

এ মামলায় জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মো. মুজাহিদ ও দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকেও আসামি করা হয়।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author