শার্শা সীমান্তে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : যশোরের শার্শা সীমান্তে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে সুজন নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে বিজিবির এক সদস্য। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে ৩০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ শনিবার ভোরে শার্শা উপজেলার অগ্রভূলোট এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

শার্শা উপজেলার বাগআচঁড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই আব্দুর রহিম হাওলাদার জানিয়েছেন, বিজিবি সদস্যরা প্রতিদিনের মতো পাঁচভূলোট সীমান্ত এলাকায় টহল দিচ্ছিলেন। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে ৫/৬জন মাদক ব্যবসায়ী অবৈধভাবে ভারত থেকে ফেনসিডিল নিয়ে ফেরার পথে বিজিবি সদস্যদের বাধার সম্মুখীন হয়। এরপর মাদক ব্যবসায়ীরা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালায়। এতে বিজিবির সার্জেন্ট আকমল হোসেন গুরুতর আহত হন।

একপর্যায়ে ধাওয়া দিয়ে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে বিজিবি সদস্যরা। পরে ওই দুইজনকে নিয়ে ভোর রাতে অগ্রভূলোট এলাকায় অভিযানে যান বিজিবি সদস্যরা। ওই গ্রামের আজিজের আমবাগানে পৌছুলে আটক দুই মাদক ব্যবসায়ীর সহযোগীরা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছোড়েন। দুই পক্ষের গোলাগুলির এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হঠে। পরে বিজিবি ঘটনাস্থল থেকে অভিযানে নিয়ে যাওয়া এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ ও ৩০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে। খবর পেয়ে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে পুলিশ নিহত মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

এসআই আব্দুর রহিম হাওলাদার আরো জানান, নিহত ওই মাদক ব্যবসায়ীর নাম সুজন। সে উপজেলার কাগজপুকুর গ্রামের মোস্কফা কামালের ছেলে।

এদিকে আহত বিজিবির পাঁচভূলোট ক্যাম্পের সার্জেন্ট আকমল হোসেনকে প্রথমে যশোর সেনানিবাস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে।

স্বাআলো/ডিএম

.

Author