ফেসবুক হ্যাক করে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক তথ্য ছড়াচ্ছে দুর্বৃত্তরা

জেলা প্রতিনিধি , মাগুরা : সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের একাধিক ব্যক্তির নামে ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলে একটি সংঘবদ্ধ চক্র সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক লেখা ও ছবি প্রচার করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই চক্রটি  আপত্তিকর পোষ্ট প্রচার করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে হিন্দুদের হত্যা, উৎখাত ও বাড়ি ঘরে আগুন দেয়ার মত উগ্র সাম্প্রদায়িক  প্রচার চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। ভূক্তভোগীদের মধ্যে একজন মাগুরার দরি মাগুরা এলাকার বাসিন্দা মিথুন কুমার বর্তমানে ঢাকায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কর্মরত। এ ঘটনায় তিনি মিরপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। যার নম্বর : ১০৮১।

মিথুন কুমার জানান, ‘১৫ আগস্ট তিনি দেখতে পান তার নিজের ফেসবুক পেজে তিনি আর লগইন করতে পারছেন না। পরে তিনি ফেসবুক থেকে একটি মেইল পান যে তার একাউন্টটি একাধিক রিপোর্টের কারণে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।’ এরপর তিনি লক্ষ করেন তার দুদিন আগে অর্থাৎ ১৩ আগস্ট তার নাম ও ব্যক্তিগত ছবি ব্যবহার করে অপর একটি লাইক পেজ খোলা হয়েছে। কে বা কারা ওই পেজটি থেকে ইসলাম ধর্ম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াসহ বিভিন্ন ব্যক্তির নামে বিষদগার ছড়াচ্ছে। এমনকি সেখান থেকে বাংলাদেশের কোন এক এলাকায় কোরবানি করতে দেয়া হচ্ছে না মর্মে একটি ভিডিও পোষ্ট করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ বানোয়াট বলে বোঝা যায়। একটি মহল তাকে হেয় প্রতিপন্ন ও বিপদে ফেলতে উস্কানিমূলক এসব পোষ্ট দিয়ে আসছে বলে তিনি দাবি করেন। এ ব্যাপারে তিনি ১৬ আগস্ট ঢাকার মিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। একই সঙ্গে তার অফিসের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি বলেন ‘এ ঘটনার পর থেকে তিনি ও তার পরিবার মারাত্মক দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছেন। যে কোন সময় তার ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা হতে পারে বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করেন। ’

এদিকে ওই পোষ্টগুলি বিভিন্ন ভুয়া নামে ফেসবুক পেজ খুলে তা সেখানে পোষ্ট করলে এক শ্রেণির মানুষ মিথুন কুমারসহ তার পরিবারকে পুড়িয়ে মারা, খুন করা, বাড়িঘরে হামলা ভাংচুরসহ বিভিন্ন সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক কমেন্ট করতে থাকে। এরফলে মিথুন কুমারসহ ওই এলাকার লোকজন শংকিত হয়ে পড়েন।

আরো পড়ুন>> মাগুরায় আরো একজনের ডেঙ্গুতে মৃত্যু

‘মাগুরার সংবাদ’ নামে  ১৭ আগস্ট তৈরি করা একটি ফেসবুক লাইক পেজে দেখা গেছে মোঃ পারভেজ নামে এক ব্যক্তি কমেন্ট করেছেন, ‘ওকে দেখা মাত্র মেরে ফেলে দেয়া হোক। আমরা মাগুরাবাসি চাইলে খুব দ্রুতই সম্ভব’, সৈয়দ তানভির আলী নামে এক ব্যক্তি কমেন্ট করেছেন, ‘ওর বাড়ি জ্বালিয়ে দাও’,

এ ধরনের অসংখ্য উস্কানিমূলক কমেন্টের ফলে মিথুন কুমারসহ একাধিক ব্যক্তি ভীত হয়ে পড়েছেন। ওই পেজে মিথুন কুমারের করা জিডির কপি কমেন্ট বক্সে দিলে এ্যাডমিন সে ছবি মুছে দিচ্ছে।

মাগুরা জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা বাসুদেব কুন্ডু জানান, ফেসবুক এর অপব্যবহার করে মানুষকে ক্ষেপিয়ে তুলে ইতোপূর্বে বহুবার সংখ্যালঘুদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। একইভাবে যেন কেউ এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটাতে না পারে তার জন্য আমরা সচেষ্ট রয়েছি। আমরা প্রশাসনকে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

মাগুরার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজোয়ান জানান, কোন ধরনের গুজব ছড়িয়ে যেন কেউ কোন ধরনের  উত্তেজনা সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য আমরা সচেষ্ট রয়েছি। কেউ সাইবার অপরাধ বা যে কোন ধরনের অপরাধ করে পার পাবে না।

স্বাআলো/এম