নতুন বিপদে ‘তারকা’ খ্যাত রানু মন্ডল!

বিনোদন ডেস্ক : ভারতের সংগীত ভূবনে এখন একটি নামই চর্চিত হচ্ছে, তা হলো রানু মন্ডল। সরকারি পরিচয়পত্র বলতে কিছুই নেই রানু মারিয়া মণ্ডলের।

গত কয়েক দিন ধরেই বিষয়টি নিয়ে চিন্তার মধ্যে ছিলেন সবাই। আপাতত রানুর বিবাহ সনদের ওপর ভরসা করেই এগোতে চাইছে প্রশাসন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রথমে রানুর একটি পরিচয়পত্র তৈরি করার কথা ভাবা হয়েছে। পরিচয়পত্র তৈরি হয়ে গেলেই রানুর সরকারিভাবে মাথা গোঁজার ঠাঁই পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পাশাপাশি তাকে মাসে ৭৫০ টাকা ভাতা দেয়ার কথাও ভাবা হয়েছে।

প্রশাসনিক সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭৮ সালে বেগোপাড়া চার্চে বাবলু মণ্ডলের সঙ্গে রানু মারিয়া মণ্ডলের বিয়ে হয়। সেই সময়ে রানুর বয়স ছিল ১৯ বছর।

আপাতত তার বিয়ের সনদটিই এখন রানুর আগামী দিনের মসৃণ পথ চলার এক মাত্র ভরসা।

রানাঘাট ২ নম্বরের বিডিও খোকন বর্মণ বলেন, ওই ম্যারেজ সার্টিফিকেট দিয়ে কীভাবে পরিচয়পত্র তৈরি করা হবে, সেটি নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে।

নাগরিক হিসেবে রানুর প্রাপ্য যাবতীয় সরকারি সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে। সমাজকল্যাণ দফতর থেকে তাকে ৭৫০ টাকা ভাতা দেয়ার কথা ভাবা হয়েছে।

অথচ কয়েক দিন আগেও চিত্র ছিল ভিন্ন। পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাট স্টেশনের ভিক্ষুক রানু মণ্ডল। স্টেশনটিতে গান শুনিয়ে ভিক্ষা করেই জীবন কাটত তার। তবে তিনি এখন সেলিব্রেটি।

শুধু তাই নয়, সম্প্রতি ভারতের প্রখ্যাত মিউজিক কম্পোজার হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান করে ঝড় তুলেছেন রানু।

গায়ক হিমেশ রেশমিয়া তার টুইটারে রেকর্ডিংয়ের ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, তার নিজের ছবি হ্যাপি হার্ডির জন্য গানের রেকর্ডিং করালেন তিনি। ছবিতে অভিনয় করেছেন হিমেশ নিজেই। আর সেই ছবিতে প্লে ব্যাক করছেন রানু।

হিমেশ বলেন, ‘আজ আমি রানুদির সাক্ষাৎ পেয়েছি। আমি অনুভব করি, তিনি ঐশ্বরিকভাবেই আশীর্বাদপুষ্ট। তার গান আমাকে মোহিত করে। আমার পক্ষ থেকে যতটুকু করা সম্ভব আমি তার সর্বোচ্চটুকু তার জন্য করেছি। তার কাছে ঈশ্বরের একটি উপহার আছে, যা গোটা দুনিয়ায় ছড়িয়ে দেয়া প্রয়োজন।’

চলছে সংগীত ভূবনে রানুর পথচলা। হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান রেকর্ড করে ফিরে আসেন রানাঘাটে। রানাঘাটে ফিরে এসে এবার প্রথম মঞ্চে গান গাইলেন রানু মণ্ডল।

শুরুটা হয়েছিল তারা রেলস্টেশনে বসে ‘এক প্যায়ার কে নাগমা’ গেয়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় সেই গান। এর পর রানাঘাট থেকে তিনি সোজা উড়ে যান মুম্বাইতে।

সম্প্রতি নবদ্বীপে একটি অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে মঞ্চ মাতালেন রানু। সেখানে ‘তেরি মেরি’ গানটি শোনান দর্শক-শ্রোতাদের। মঞ্চে প্রথম রানুর গান শুনে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন দর্শকরা। অনুষ্ঠানের মধ্যমণি হয়েছিলেন রানু।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, হিমেশ রেশমিয়ার ছবিতে প্লে ব্যাকের পর এবার সালমন খানের ‘দাবাং থ্রি’-তে প্লে ব্যাকের জন্য প্রস্তাব পেয়েছেন রানু। এ ছাড়া ভারতের জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো বিগ বসের জন্যও রানু মণ্ডলকে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বলে গুঞ্জন।

স্বাআলো/এসএ