বাগেরহাটে হত্যার ৫ বছর পর দেহাবশেষ উত্তোলন

জেলা প্রতিনিধি, বাগেরহাট : বাগেরহাটের মোল্লাহাটে হত্যাকান্ডের ৫ বছর পর মাটিচাপা দেয়া এক গৃহশিক্ষকের দেহাবশেষ উত্তোলন করা হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টরা মঙ্গলবার বিকেলে মোল্লাহাট উপজেলার আঠারোবেকী খালের পাশ থেকে গৃহশিক্ষক রবিউল শরীফের দেহাবশেষ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে জন্য পাঠানো হয়েছে।

রবিউল শরীফের বাড়ি উপজেলার শাসন গ্রামে । তিনি ওই গ্রামের জামাল শরীফের ছেলে-মেয়েকে প্রাইভেট পড়াতেন। ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসে প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে রবিউল শরীফ আর বাড়ি ফেরেনি। অভিযোগ ওঠে গৃহকর্তার স্ত্রীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের জের হিসেবে গৃহকর্তা জামাল শরীফ ও তার ছেলে রনি শরীফ রবিউলকে হত্যা করে খালের পাশে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। দীর্ঘ ৫ বছর পর স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্ত্রী শিলা বেগম রবিউল শরীফকে হত্যার ঘটনা ফাঁস করে দেন। এক পর্যায়ে রবিউলের বড় ভাই হাবিবুর রহমান গত ২৬ আগস্ট বাগেরহাট আদলতে মামলা করেন।

আরো পড়ুন>>> যেভাবে ৪ শিশুকে ধর্ষণ করলো ৫৫ বছরের বৃদ্ধ

ফকিরহাট- মোল্লাহাট উপজেলা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছয়ের উদ্দিন জানান, আদলতের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাত সিদ্দিকী ও ডা. অভিজিৎ কুমার মৃধার উপস্থিাতিতে থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সহযোগিতায় রবিউলের দেহাবশেষ উদ্ধার করা হয়। কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি বলে জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

স্বাআলো/এএম