ব্লেড দিয়ে সার্জারী করলেন হোমিও চিকিৎসক

জেলা প্রতিনিধি, নেত্রকোনা : ক্যান্সার হয়েছে জানিয়ে অস্ত্রোপচারের নামে ব্লেড দিয়ে এক নারীর স্তন কেটে ফেলেছেন হোমিও চিকিৎসক। নেত্রকোনার খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট বাজারে ভূয়া চিকিৎসক মানিক তালুকদার এ ঘটনা ঘটিয়েছে। মানিক জেলার মদন উপজেলার কাতলা গ্রামের আমির উদ্দিন তালুকদারের ছেলে। আজ বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সার্জারী করার অভিযোগে সোমবার রাতে মানিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  তার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার খালিয়াজুরী থানায় প্রতারণার অভিযোগে মামলা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, খালিয়াজুরীর পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও ফার্মেসিকে চেম্বার বানিয়ে সেখানে চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন মানিক তালুকদার। তিনি নিজেকে মা ও শিশু, চর্ম, যৌন সার্জারিতে বিশেষ অভিজ্ঞ বলে পরিচয় দিতেন।

পুলিশ জানায়, পাঁচহাট গ্রামের ওই নারী বাম স্তনে ব্যথায় ভুগছিলেন। গত ৭ এপ্রিল তিনি মানিক তালুকদারের ইকবাল হোমিও ফার্মেসিতে যান। মানিক ওই নারীর স্তন ক্যান্সার হয়েছে বলে জানান। একপর্যায়ে তিনি ওই নারীকে অপারেশনের কথা বলে অজ্ঞান করে ব্লেড দিয়ে বাম স্তন কেটে ফেলেন। পরে ওই নারীর মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার রাতে মানিককে গ্রেফতার করা হয়।

খালিয়াজুরী থানার ওসি মাহমুদুল হক বলেন, মানিক তালুকদার মূলত একজন ভুয়া চিকিৎসক। গ্রেফতারের পর তিনি হোমিও চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দেন। তবে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেননি। মামলার পর বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

স্বাআলো/এম