ইবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম রবিউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে শাখা ছাত্রলীগের একাংশ।

তাদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে রবিবার সকাল দশটায় ক্যাম্পাসে শোডাউন দেয় ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের কর্মীরা।

সূত্রেমতে, আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ যশোর হয়ে কুষ্টিয়া যাচ্ছিলেন। এসময় ছাত্রলীগের একাংশ তাকে শুভেচ্ছা জানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধার ফটকে যায়। হানিফ চলে গেলে তারা প্রধান ফটক থেকে মিছিল শুরু করে। এসময় তারা পলাশ ও রাকিবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে দলীয় টেন্টে  গিয়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

সমাবেশে জোবায়ের মাহমুদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন শাখা ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের শিশির ইসলাম বাবু, তৌকির মাহফুজ মাসুদ, মিজানুর রহমান এবং হোসাইন মজুমদার। এসময় মিজানুর রহমান লালন এবং ফয়সাল ছিদ্দিকী আরাফাতসহ ছাত্রলীগের প্রায় শতাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

 এসময় তারা ‘মানিনা মানবোনা, পকেট কমিটি মানবোনা, ৪০ লাখের কমিটি মানবোনা, প্রশাসনের কমিটি মানবোনা, অবৈধ কমিটি কমিটি মানবোনা’ বলে স্লোগান দিতে থাকে।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্পাদক রাকিবের বিরুদ্ধে ৪০ লাখ টাকার বিনিময়ে নেতা হওয়ার এক অডিও ফাঁস হয়। অডিওতে টাকার বিনিময়ে নেতা বিষয়টি সুস্পষ্ট হয়ে উঠে। অডিওতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাবব্বীর নাম উল্লেখ করে রাকিব। এতে ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। গতকাল (শনিবার) ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী পদত্যাগ করলে ইবি শাখা ছাত্রলীগের কমিটি স্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন  উঠে অনেক মহলে।

এ ব্যাপারে ইবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শিশির ইসলাম বাবু বলেন, ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া একটি সংগঠন । এই সংগঠনের একটি গৌরবময় ইতিহাস রয়েছে। ৪০ লাখ টাকার বিনিময়ে নেতা হয়ে রাকিব বঙ্গবন্ধুর সম্মান ম্লান করেছে। আর এটা কোনো সংগঠনের আদর্শ হতে পারেনা। তাই সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে এই কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে।

স্বাআলো/আরবিএ