স্ত্রীর সরকারি চাকুরি ৩ বছর ধরে করছেন স্বামী

জেলা প্রতিনিধি. পিরোজপুর : চাকরিতে যোগদানের পর একদিনের জন্যও অফিসে দেখা যায়নি ঝুমুর রানীকে। তার বদলে ওই চাকরি করছেন তার স্বামী শুভ সিকদার। পিরোজপুর রাঙ্গাবালী পিআইও অফিসে এইভাবে স্ত্রীর হয়ে প্রক্সি দিয়ে যাচ্ছেন স্বামী। শুধু স্ত্রীর প্রক্সি নয়, রাঙ্গাবালী পিআইও অফিসের ঘুষ লেনদেন হয় শুভর মাধ্যমে।

এ ঘটনায় জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়, ২০১৬ সালের ১৬ই  আগস্ট সেতু-কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পের অধীনে ঝুমুর রানীকে রাঙ্গাবালী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে কার্য সহকারি পদে নিয়োগ দেয়া হয়। কিন্তু যোগদানের তিন বছরে একদিনও অফিস করেনি ঝুমুর।

তার বদলে স্বামী শুভ সিকদার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমারের স্নেহভাজন হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে অন্যান্যরা প্রতিবাদ করছেন না।

এ প্রসঙ্গে রাঙ্গাবালী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ বলেন, ‘শুভ আমাদের অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারি না হলেও সে আমাদেরকে হেল্প করে।’

রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, ‘স্ত্রীর চাকরিতে স্বামীর প্রক্সি দেয়ার কোন নিয়ম নেই। এটি সম্পূর্ণ নিয়মবহির্ভূত কাজ। তদন্ত করে সত্যতা পেলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

স্বাআলো/এম