বেনাপোলে লিপিস্টিক ইমরানের স্ট্যাটাস : বিএনপি নেতার বোমা হামলার সাথে জড়িত !

ইমরানের স্ট্যাটাস

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : বেনাপোল পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দিনের বাড়িতে বোমা হামলার ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে, মামলাটি ভিন্ন খাতে নেয়ার জন্য অস্ত্র ও বোমাবাজী মামলার আসামিরা অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বেনাপোল পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম উদ্দিনের বেনাপোল দীঘিরপাড় বাসায় বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে পর পর দুটি বোমা হামলা চালায়। শুক্রবার দুপুরে যশোরের এএসসিপ (নাভারণ সার্কেল) জুয়েল ইমরান ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন এবং বোমার অংশ বিশেষ জব্দ করে। এ ঘটনায় আজিম উদ্দিন শুক্রবার বেনাপোল পোর্ট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরিতে কারো নাম উল্লেখ করেননি। পুলিশ বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার রহস্য উন্মোচনের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে।


এদিকে বোমা হামলার পর পরই বেনাপোল পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের বোমা হামলা মামলার এক নম্বর আসামি বেনাপোলের ভবেরবেড় এলাকার আল ইমরান ওরফে লিপিস্টিক ইমরান ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। যাতে তিনি উল্লেখ করেছেন, পৌর মেয়রের নির্দেশে শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকুল হুসাইন এ বোমা হামলা চালিয়েছে।
বেনাপোল ও শার্শার সচেতন মহল এ স্ট্যাটাস দেখে হতবাক হয়ে পড়েছেন। তারা জানান, ঘটনার শিকার আজিম উদ্দিন কাউকে দেখেননি বলে ডায়েরিতে উল্লেখ করেছেন। সেখানে ১২ ঘন্টা পার না হলেও কিভাবে আজিম উদ্দিনের সহযোগি একাধিক বোমা হামলার আসামি আল ইমরান ওরফে লিপিস্টিক ইমরান ছাত্রলীগ নেতা আকুল বা অন্যান্যদের নাম উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দেন।
রবিউল ইসলাম নামে এক স্কুল শিক্ষক জানান, ঘটনার সাথে আল ইমরান ওরফে লিপিস্টিক ইমরান জড়িত। ইতোপূর্বে পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বোমা হামলার এক নম্বর ( মামলা নম্বর-৩৭, তারিখ : ২২.০৬.২০১৮) এবং পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে লুটপাটের মামলা (মামলা নম্বর ৪৯, তারিখ : ২৮.৫.২০১৯), সাংবাদিক হত্যার চেষ্টা মামলা, কাস্টমস কর্মকর্তার হত্যার চেস্টা, ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলা মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। সেহেতু আজিম উদ্দিনের বাসায় বোমা হামলায়  পুলিশের খাতায় পলাতক আসামি আল ইমরান ওরফে লিপিস্টিক ইমরান জড়িত থাকার সম্ভবনা অনেক বেশি। আর ওই ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নেয়ার জন্য এবং নিজেকে আড়াল করার জন্য অন্যদের দোষারোপ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিত্তিহীন ও কাল্পনিক স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ওই বোমা হামলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানা সম্ভব বলে তিনি দাবি করেন।
শার্শা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকুল হুসাইন জানান, তিনি গত ১১ মাস যাবৎ বেনাপোলে যান না। যশোর শহরে বাসা ভাড়া করে থাকেন। তারপর গত মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত ঢাকায় অবস্থান করেন। ঢাকায় যাতায়াতের সকল প্রকার ডকুমেন্ট রয়েছে বলে দাবি করে বলেন, ইমরানের বিরুদ্ধে দুই একদিনের মধ্যে আদালতে মামলা করবেন। সামাজিক ভাবে সম্মান ক্ষুন্ন করায় এ মামলা করবেন।
এ ব্যাপারে বিএনপি নেতা আজিম উদ্দিনের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভি করেননি।

স্বাআলো/এম