আন্দোলনের মুখে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ

পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন ল্যাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট কারুচুপির অভিযোগে সৃষ্ট আন্দোলনের মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন ল্যাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস। পদত্যাগকালে শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার স্বার্থে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে তিনি দাবি করেন।

রবিবার দেশটির জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণ দিয়ে তিনি পদত্যাগ করেন।

টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট ইভো বলেন, আমি প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছি। তারপরেই ভাইস প্রেসিডেন্ট আলভারো গার্সিয়া লিনেরা এবং সিনেট প্রেসিডেন্ট আদ্রিয়ানা সালভাতিয়েরাও পদত্যাগ করেন।

প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের সিদ্ধান্তে বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় নেমে আনন্দ মিছিল করেছে। লা পাজ সড়কে ইতোমধ্যেই উৎসবের পরিবেশ বিরাজ করছে। একই সঙ্গে লোকজনকে লাল, হলুদ এবং সবুজের মিশ্রণে তৈরি বলিভিয়ার পতাকা হাতে উল্লাস করতে দেখা গেছে।

গত ২০ অক্টোবর দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সুস্পষ্ট কারচুপির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করার আহ্বান জানায়। কারচুপির বিষয়ে অভিযোগ ওঠার পর থেকেই গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বলিভিয়ায় সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়।

মোরালস একজন সাবেক কৃষক এবং প্রথম কোনো নৃতাত্বিক গোষ্ঠীর সদস্য থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ২০০৬ সাল থেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। টানা চতুর্থবার দেশের ক্ষমতায় থাকার পর তাকে পদত্যাগ করতে হলো।

স্বাআলো/আরবিএ