পাকশী রেলওয়ের জায়গার দখল ছাড়তে নোটিশ

জেলা প্রতিনিধি,পাবনা: পাবনার ঈশ্বরদীতে পশ্চিম রেল বিভাগের জায়গা ছেড়ে দেয়ার জন্য আড়াই হাজার অবৈধ দখলকারীকে নোটিশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার পশ্চিম রেলের নির্বাহী হাকিম ও পাকশী রেল বিভাগের ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা নুরুজ্জামান স্বাক্ষরিত নোটিশটি দেয়া হয়।খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে নুরুজ্জামান বলেন, পাকশী ইউনিয়নের বাবুপাড়া, এমএস কলোনি ও মেরিনপাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে রেলওয়ের ১৬৬ একরের বেশি রেলওয়ের মূল্যবান জমি বেদখলে চলে গেছে। এতে নতুন করে নির্মাণ করা হয়েছে বাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনা।

তিনি আরো বলেন, মঙ্গলবার থেকে দখলদারদের ঠিকানায় গিয়ে নোটিশ দেয়া হচ্ছে। আজ-কালের (বুধবার ও বৃহস্পতিবার) মধ্যে দখলদারের সবাইকে নোটিশ দেয়া সম্ভব হবে।

নোটিশে বলা হয়েছে, নোটিশ প্রাপ্তির পনের দিনের মধ্যে অবৈধ দখল ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়া হচ্ছে। অন্যথায় অবৈধ স্থাপনা ভেঙে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। অবকাঠামো ভাঙার বিপরীতে সরকারের যে ব্যয় হবে তাও দখলদারের কাছ থেকে আদায় করা হবে।

রেল কর্তৃপক্ষ বলছে, রেলের পাকশী বিভাগে ২৭ হাজার একর জমির মধ্যে দখল করা হয়েছে দুই হাজার ৬০০ একর জমি। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য রূপপুর মোড়, ঈশ্বরদী জংশন, ঈশ্বরদীর নর্থ বেঙ্গল পেপার মিল, পাকশী রেল বিভাগের সদর দপ্তরসহ বিভিন্ন স্থানে রেলের ২০০ একর জমি প্রয়োজন। অথচ এ পর্যন্ত দখলমুক্ত করা গেছে ৬০ একর জমি। এর মধ্যে ঈশ্বরদী রেল জংশন এলাকায় উদ্ধার করা হয়েছে ১৭ একর জমি।

এ বিষয়ে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক আহছান উল্লা বলেন, রেলের জমি উদ্ধারে যেকোনো মূল্যে অভিযান অব্যাহত রাখা হবে। কারণ, বড় বড় প্রকল্পের কাজ শুরু করা যাচ্ছে না রেলের জমি দখল হয়ে যাওয়ায়। এবার এ সব জমি উদ্ধার করা হবেই। দখলমুক্ত করা হবেই।

স্বাআলো/টিআই