বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আ’লীগকে বাঁচাতে হবে: ওবায়দুল কাদের

জেলা পটুয়াখালী, পটুয়াখালীঃ ‘বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে বঙ্গবন্ধুর সংগঠন, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠন আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে বাচাঁতে হলে দলের ত্যাগী নেতা কর্মীদের বাঁচাতে হবে, এতে দল টিকে থাকবে, সংগঠনও শক্তিশালী হবে’ বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি দলের শৃঙ্খলা রক্ষায় কঠোর হুশিয়ারী দেন। দল ভারি করতে নিজের পরিবারের লোকদের কিংবা অন্য দলের মানুষদের দলে না টানার জন্য নির্দেশ দেন এবং দলের ত্যাগী ও পরিক্ষিতদের মূল্যায়ন করার কথাও বলেন।

আজ সোমবার দুপুরে শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

আরো পড়ুন>>> মঙ্গলবার নড়াইল আ.লীগের সম্মেলন, পদ পেতে তৎপর ১৮ নেতা

সম্মেলনের দ্বিতীয় সেশনে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীরকে সভাপতি এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নানকে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, এ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়ারকে ও বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  হিসেবে নাম ঘোষণা করেন ওবায়দুল কাদের।

এর আগে সোমবার সকালে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা এবং দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এ সময় বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করা হয়। পরে সম্মেলন স্থলে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে আয়োজিত সম্মেলনের উদ্বোধন করেন সাবেক চীফ হুইপ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. আফজাল হোসেন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ শাম্মি আহমেদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনুসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা। অতিথি হিসাবে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সাবেক বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী আ.খ.ম জাহাঙ্গীর হোসাইন, সাবেক চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ এমপি, মহিব্বুর রহমান এমপি, অধ্যাপিকা কাজী কানিজ সুলতানা হেলেন এমপি, এস.এম শাহজাদা এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান মোহন মিয়াসহ উপজেলা সমূহের চেয়ারম্যানবৃন্দ, পৌরসভা সমূহের মেয়রবৃন্দ।

সম্মেলনে আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের হাজার হাজার নেতাকর্মী যোগ দেয়।

স্বাআলো/এসএ