মঙ্গলবার নড়াইল আ.লীগের সম্মেলন, পদ পেতে তৎপর ১৮ নেতা

সুজয় বকসী, নড়াইল : আগামীকাল নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। এ উপলক্ষে গোটা শহরে সাজ সাজ রব। মোড়ে মোড়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ছবি সম্বলিত শতাধিক তোরণ, শত শত ডিজিটাল ব্যানার ও বিলবোর্ড শোভা পাচ্ছে। সম্মেলনের প্রস্তুতিও প্রায় শেষ। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আশা করছেন, এত বড় সম্মেলন নড়াইলে এর আগে কখনো অনুষ্ঠিত হয়নি।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান মঞ্চে আগামীকালের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। নৌকাকৃতির সুবিশাল মঞ্চ তৈরি ছাড়াও মূল মঞ্চের দক্ষিণ পার্শে আরো একটি মঞ্চ করা হচ্ছে। মূল মঞ্চে কেন্দ্রীয় এবং অতিথিরা বসবেন এবং পাশের মঞ্চে স্থানীয়, অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতারা আসন গ্রহণ করনেব। সম্মেলন স্থলের আশপাশের এলাকা সাজানো হয়েছে। সম্মেলনকে সামনে রেখে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা অনেক উজ্জীবিত অবস্থায় আছেন। তাদের মূল্যায়নও বেড়েছে কয়েকগুন।

সম্মেলন উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্যাচার্য্য। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

কারা হচ্ছেন নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের আগামী দিনের কান্ডারি। বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বহাল থাকছেন? না নতুন নেতৃত্ব আসছে? এ প্রশ্ন এখন নড়াইলবাসীর মুখে মুখে।

এদিকে, শীর্ষ দুই পদ পেতে দেড় ডজন নেতা দৌড় ঝাপ করছেন। যাদের কয়েকজন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করতেও সক্ষম হয়েছেন।

এদিকে, তৃণমূল নেতাকর্মীরা সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটিতে দুর্নীতিবাজ, বিতর্কিত ও অনুপ্রবেশকারীদের পদ না দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জেলা আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সভাপতি ও সাধারণ সম্পদক পদে প্রার্থী হতে গেলে দলীয় মনোনয়নপত্র কিনতে হবে এবং এর জন্য মূল নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ হাজার টাকা। এ পর্যন্ত সভাপতি পদে ৯ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ৯ জন মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।

তারা হলেন, সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বস, বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান জিন্নাহ, অ্যাডভোকেট আইয়ুব আলী, সিকদার আজাদুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ আলী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অচিন চক্রবর্ত্তী, সদর উপজেলা পরিষদ প্রাক্তন চেয়ারম্যান আ্যাডভোকেট গোলাম নবী, কালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এমদাদ হোসেন মোল্যা এবং সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলু, বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নড়াইল পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর হোসেন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও নড়াইল চেম্বাস অব কর্মাসের সভাপতি হাসানুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক বাবুল সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল করিম মুন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ উপ-কমিটির সদস্য রাশেদুল বাশার ডলার, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী বশিরুল হক, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম উজ্জল, নড়াইল পৌর যুব লীগের সাবেক সভাপতি সরদার আলমগীর হোসেন।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের ১৫ নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের দিনই কেন্দ্রীয় নেতরা অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোসকে সভাপতি এবং নিজাম উদ্দিন খান নিলুকে প্রথমবার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করেন। তবে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি গঠিত হয় তার প্রায় ১ বছর পর ।

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাবুল সাহা জানান, সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ হয়েছে। ৩৪১ জন কাউন্সিলরসহ প্রায় ৪০ হাজার নেতাকর্মী সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন। তাদের জন্য দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করা হবে।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস ও সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু জানান, দলের জন্য নিবেদিত হয়ে কাজ করেছেন। দলের সিদ্ধান্তের বাইরে কখনও তারা যাননি। তাদের সময় তৃণমূল পর্যায়ে আওয়ামী লীগ আরো সংগঠিত হয়েছে। তাই তারা আশা করছেন দল পূনরায় তাদের মূল্যায়ন করবে।

স্বাআলো/ডিএম