নীল চোখের তরুণ অভিনেতা তাসকিন সাত ছবিতে

বিনোদন ডেস্ক: সুদূর অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে বসে বাংলাদেশ কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন নীল চোখের তরুণ অভিনেতা তাসকিন রহমান। ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিটির মাধ্যমে দেশীয় চলচ্চিত্রে ‘নীল চোখ’-এর এই ভিলেন নতুনত্ব যোগ করেছেন।

এই মুহূর্তে সবচেয়ে ব্যস্ততম অভিনেতাদের একজন এই তাসকিন রহমান। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে ৭টি সিনেমা। সবগুলো ছবিতেই চুক্তিবদ্ধ হয়ে আছেন এই অভিনেতা। ছবিগুলো হলো সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’ এম রাহিমের ‘শান’ দীপঙ্কর দীপনের ‘ঢাকা ২০৪০’ সৌরভ কুন্ডু অপারেশন সুন্দরবন’ ফয়সাল আহমেদের ‘গিরগিটি’ এফ আই মানিকের ‘মিশন এক্সট্রিম’ ও সাইফ চন্দনের ‘ওস্তাদ’।

এরমধ্যে ‘শান’ ছবিটির কাজ অনেকটুকুই এগিয়েছে। বেশ কিছুদিন সময় দিলে ছবিটির কাজ শেষ হয়ে যাবে। ‘ঢাকা ২০৪০’র কাজও প্রায় শেষের পথে। অন্যদিকে এখন এই নায়ক ব্যস্ত রয়েছেন ‘ক্যাসিনো’ ছবির কাজ নিয়ে। টানা কাজ করে চলেছেন। ‘মিশন এক্সট্রিম’ ছবির কাজ শেষ, আসছে রোজার ঈদে মুক্তি পাবে ছবিটি এবং বাকি ছবিগুলোর কাজ এখনও শুরু হয় নি, তবে খুব শিগগিরই হবে বলে জানান এই অভিনেতা।

তাসকিন রহমান বলেন, প্রতিটি ছবিতেই আমার চরিত্রের ভিন্নতা আছে। একটা থেকে বের হয়ে অন্য চরিত্রে নিজেকে নিয়ে চ্যালেঞ্জ নিচ্ছি এবং খেলার সুযোগ পাচ্ছি। আর আমি এটাই চেয়েছিলাম। এই ছবিগুলো হাতে নেওয়ার কারণ, ছবিগুলোর গল্প ও নির্মাতা ভালো। আমার মনে হয়েছে, এখনকার সময়ে এমন ঘরানার ছবি হওয়া দরকার।

খুব বেশি বলতে না পারলেও অল্প করে যদি বলি, ‘ক্যাসিনো’তে আমি থাকি ক্যাসিনো সম্রাট, ছবির গল্প দুর্দান্ত। কাজও হচ্ছে ঠিক তেমনভাবেই। এই ছবিটি নতুন বছরে একটা অন্যরকম মাত্রা যোগ করবে বলে আমার বিশ্বাস। ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এ আমার চরিত্র হচ্ছে একেবারে ‘র’ ‘ঢাকা ২০৪০’-তে আমি ইতিবাচক চরিত্রে, হিরোই বলা যায়। বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে ‘গিরগিটি’ ছবিটিতে আমার সঙ্গে থাকবেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। ছবিতে আমার দ্বৈত চরিত্র থাকবে, প্রথমবারের মত। ‘শান’-এ এন্টি হিরো (ভিলেন)। এছাড়া ‘ওস্তাদ’-ছবিটিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র করছি।

নায়ক, ভিলেন সব চরিত্রেই নিজেকে উপস্থাপন করছেন, এই সময়ে যেটা অনেকেই করেন না। বেশিরভাগই নিজেকে ‘হিরো’ হিসেবে উপস্থাপন করতে চাই ।

তাসকিন আরো বলেন,  তবে আমি নিজেকে কখনও একটি জায়গাতে আটকে রাখতে চাইনি। আমি চাই না দর্শকরা আমাকে একইভাবে দেখুক। সেজন্য সব ধরণের চরিত্রেই কাজ করছি, নিজেকে ভাঙছি। আমি চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি, আমার চরিত্র দেখি যেটাতে খেলা যাবে, পরিচালকও যেন আমার চরিত্রটা নিয়ে খেলেন। এটাই চাই আমি। একজন ভার্সেটাইল অভিনেতা হিসেবে নিজেকে গড়তে চাই। হিরো কিংবা ভিলেন এটা আমার কাছে ম্যাটার করে না।

স্বাআলো/টিআই