আগামীকাল বাগেরহাট জেলা আ’লীগের সম্মেলন

জেলা প্রতিনিধি, বাগেরহাট : কতিপয় নেতার একক আধিপত্য বিস্তারে তৃণমুলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ বছর পর বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আগামীকাল সোমবার। দলের মধ্যে বিকল্প নেতৃত্বের কোন সুযোগ না থাকায় এ বারের সম্মেলনেও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কোন পদে নতুন নেতৃত্ব আসছে না বলে ইতোমধ্যে প্রচার পেয়েছে। সম্মেলন সফল করতে দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে প্রধান অতিথি করে ব্যাপক আয়োজন করা হয়েছে। জাতীয় সংসদের হুইপসহ কেন্দ্রের আরো ডজন খানেক নেতা বাগেরহাটের এ সম্মেলনে আমন্ত্রিত বলে গোটা জেলায় পোস্টার প্যানায় প্রচার করা হচ্ছে। মাইকিংও করা হচ্ছে। সম্মেলন স্থান বাগেরহাট খানজাহান আলী কলেজ মাঠে মঞ্চসহ প্যান্ডেল তৈরি করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের বিগত প্রায় ৪০ বছর ধরে সভাপতির দায়িত্ব পালনকারী সাবেক প্রতিমন্ত্রী প্রবীণ আওয়ামী নেতা জেলার মোড়েলগঞ্জ-শরনখোলা আসনের এমপি ডা. মোজাম্মেল হোসেনের  আবারও সভাপতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে বিএনপি সভাপতি এমএএইচ সেলিমের একক দাপটে বিপর্যস্ত  বাগেরহাটের আওয়ামী লীগকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার যোগ্য নেতা মুক্তি যুদ্ধকালীন খুলনা বিভাগীয় মুজিব বাহিনী প্রধান শেখ কামরুজ্জামান টুকু আবারও সাধারণ সম্পাদক থাকবেন বলে দলীয় নেতা-কর্মীরা মনে করছেন। ফলে জেলা সম্মেলনের জন্য ব্যাপক আয়োজন করলেও জেলা কমিটির ভাইটাল কোন পদে প্রতিযোগী কোন প্রার্থীর নাম রবিবার দুপুরে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শোনা যায় নি।

অনুপ্রবেশকারীদের কারণে দল থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেয়া ফকিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খান আরিফুর রহমানসহ একাধিক নেতা বলেন, বাগেরহাটে বর্তমানে আওয়ামী লীগ ঘুনে ধরা বাঁশের মতো। মাঠে বিরোধী দল নেই আর  সরকার ক্ষমতায় থাকায় কতিপয় নেতা ক্ষমতার অপব্যবহার করে ব্যক্তি ফায়দা  লুটছেন। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয় প্রতীকে দিয়ে অযোগ্য লোকদের প্রার্থী করায়  দলের অধিকাংশ ত্যাগী নেতা আমাদের মত ঘরে বসে রয়েছে। এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ ও ব্যারিস্টার শেখ ওবায়েদসহ একাধিক সাবেক  ছাত্রলীগ নেতা রয়েছেন। যারা নতুন উদ্যোগে জেলা পর্যায়ে সাংগঠনিক কাজে যোগ্য।  দায়িত্ব পেলে বাগেরহাটে বিকল্প নেতৃত্ব গড়ে তুলতে পারে সকল নেতা-কর্মীদের সমন্বয়ে । এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন সফল করতে এবং প্রস্তুতি বিষয়ে রবিবার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যলয়ে এক প্রেস ব্রিফিং করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান প্রেস ব্রিফিং এ বলেন, অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায়  আমরা এখন অপ্রতিরোধ্য। রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি নিয়ে পৌছে গেছি মাথাপিছু আয়ের নতুন দিগন্তে। আর এসবই সম্ভব হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কারিশমাটিক নেতৃত্বে। জনমানুষের ভাগ্যপরিবর্তনসহ দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় শেখ হাসিনার দ্ক্ষতা আজ বিশ^ মডেল। তারই ধারাবাহিকতায় বাগেরহাট জেলাও পিছিয়ে নেই। এসব উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় আমাদের সকলকেই শরীক হতে হবে। সোমবারের জেলা সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতারা আসবেন তাদের  নিদের্শনায় জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হবে।

স্বাআলো/কে