নতুন ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে তৃতীয় মতের সমর্থন প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : বৃহত্তর কমিউনিস্ট ও বাম ঐক্য গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) নামে একটি নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করা হলেও শুরুতেই তা হোঁচট খেয়েছে। রাশেদ খান মেননের ওয়ার্কার্স পার্টি ছেড়ে আসা মতাদর্শ রক্ষা সমন্বয় কমিটি ও তৃতীয় মতের দুইটি ধারা এই নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করে।

কিন্তু মাসখানেকের মধ্যেই নতুন দলের বিরুদ্ধে তৃতীয় মতকে মূল্যায়ন না করার অভিযোগ তুলে নিজেদেরকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে একটি পক্ষ।

জানা যায়, গত ২৯ ও ৩০ নভেম্বর যশোরে বড়োসড়ো সমাবেশ করে নতুন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টির (মার্কসবাদী) যাত্রা শুরু হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন ৩০ নভেম্বর যশোর শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয় কাউন্সিল অধিবেশন। ওই অধিবেশন থেকে ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক পলিটব্যুরোর সদস্য নুরুল হাসানকে সভাপতি ও আরেক সাবেক পলিটব্যুরো সদস্য ইকবাল কবির জাহিদকে সাধারণ সম্পাদক করে ২৮ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। এর আগের দিন যশোর টাউন হল ময়দানে বড় ধরনের সমাবেশ করে ওয়ার্কার্স পার্টি মতাদর্শ রক্ষা সমন্বয় কমিটি। ওই সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সাইফুল হক, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নুসহ বিভিন্ন কমিউনিস্ট দলের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন। সমাবেশ থেকে নেতারা বাংলাদেশের মেহনতী মানুষের মুক্তির লড়াইকে বেগবান করতে নিজদের এক পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

কিন্তু এই ঘটনার মাস না পেরোতেই তৃতীয় মতের ধারাটি নতুন দল থেকে তাদের সমর্থন প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এই ধারার সমন্বয়ক মোল্লা লুৎফুর রহমান স্বাধীন আলোকে জানিয়েছেন, নতুন দলের নেতাদের কথা এবং কাজের সঙ্গে ন্যূনতম মিল নেই। তারা বৃহত্তর ঐক্যের কথা বললেও ভিন্নমতের মূল্যায়ন করছেন না। আমরা যারা তৃতীয় মতের পক্ষে তাদেরকে সমাবেশ ও সম্মেলনের কোনো স্থানেই ন্যূনতম বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ দেয়া হয়নি। এতে বোঝা যায় ওয়ার্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন অংশ এবং নতুন দলের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। এমন চেতনা যারা ধারণ করেন তাদের দিয়ে দেশের বৃহত্তর কমিউনিস্ট ঐক্য সম্ভব নয়। এজন্য আমরা নতুন দল থেকে আমাদের সমর্থন প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

এব্যাপারে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ বলেন, আমাদের আগের পার্টি বা নতুন পার্টির মধ্যে তৃতীয় মতের কোন খবর আমার জানা নেই। কেউ এমন কোন দলিল উপস্থাপন করেননি। ফেসবুকে তৃতীয় মতের নামে কিছু লেখা দেখেছি। তবে কেউ অফিসিয়ালিভাবে কোন কিছু আমাদের বলেনি।

স্বাআলো/ডিএম