লালমনিরহাটে গৃহবধূ হত্যার অভিযোগ

দুই সন্তানের মা ফাতেমা বেগমকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে

রংপুর ব্যুরো: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় দুই সন্তানের মা ফাতেমা বেগমকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।  হত্যাকারীদের বিচার দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে করেছেন ফাতেমার ভাই।

আজ সোমবার দুপুরে হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী দোয়ানী পিত্তিফাটা গ্রামে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার ফাতেমার বড়ভাই মতিউর রহমান। এ সময় ফাতেমার পিতা-মাতা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, ১৩ বছর আগে পাটগ্রাম উপজেলার জোংড়া ইউনিয়নের ইঞ্জিন পাড়ার আব্দুল রাজ্জাককের সাথে ফাতেমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর এক মেয়ে ও এক ছেলে হয়। সুখে ছিল পরিবারটি। গত ২০১৮ সালের ১১ নভেম্বর  আব্দুর রাজ্জাক বাড়িতে না থাকায় ফাতেমা বেগমকে রাতের আঁধারে দুই দেবর ও শ্বশুর মিলে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বাড়ির এক কিলোমিটার দূরে শ্মশানঘাটে গাছে ঝুলিয়ে রেখে পরিবারের লোকজন আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে।

মতিউর রহমান বলেন, পাটগ্রাম পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট মেডিকেলে পাঠায়। এ ঘটনায় আমার বাবা তমিক উদ্দিন পাটগ্রাম থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করতে চাইলে পুলিশ মামলা নেয়নি। বরং বাবা কাছে স্বাক্ষর নিয়ে একটি ইউডি মামলা করেন।

পরে বাবা তমিজ উদ্দিন লালমনিরহাট নারী ও শিশু দমন ট্রাইবুনালে ফাতেমার স্বামী আব্দুর রাজ্জাক, দুই দেবর মানিক ও হানিফসহ ৮ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

স্বাআলো/আরবিএ