চান্দ্রা বাজারের নদীর ঘাট ডাস্টবিনে পরিণত

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা (প.) ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী চান্দ্রা বাজারে কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত নদীর ঘাট এখন ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ ও বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির কোনো তদারকি না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।এক সময়ের খরস্রোতা ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে গড়ে ওঠে উপজেলার বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের চান্দ্রা বাজারটি। যা এখন উপজেলার সবচেয়ে বড় বাজার বলে খ্যাত।

ডাকাতিয়া নদী দিয়ে নৌকায় করে ব্যবসায়ীরা নিয়মিত তাদের পণ্য আনা-নেয়া করতেন। এজন্য ফরিদগঞ্জ-চান্দ্রা সড়কের পাশে চান্দ্রা বাজারের নদীর পাশেই প্রায় কোটি টাকায় নির্মিত হয় ৩০ ফুট দৈর্ঘের নদীর ঘাট, যাত্রীছাউনি, বাজারের টয়লেট। কিন্তু নদী খেকোদের দখলে ও কচুরিপানা জটের কারণে প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে নৌকা দিয়ে পণ্য পরিবহন।

আর এ সুযোগে বাজারের লোকজন স্থানটিকে ময়লা-আবর্জনা ফেলার ডাস্টবিন হিসেবে ব্যবহার শুরু করে। দিনে দিনে এটি এখন ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। ময়লা জমতে জমতে এখন মূল সড়কে পৌঁছেছে। এখান দিয়ে নাক চেপে যাতায়াত করতে হয় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার এবং বাজারে আগত জনসাধারণকে।ভুক্তভোগীদের অভিযোগ উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে এবিষয়ে একাধিকবার জানানোর পরেও উনি কোন পদক্ষেপ নেননি।

চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক আলী আহম্মেদবলেন, এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে হলে নাক খোলা রেখে যাতায়াত করা যায় না,নাক চেপে ধরে যাতায়াত করতে হয়,প্রচন্ড দূর্ঘন্ধযুক্ত হয়ে গেছে এলাকা।দ্রুত এবং স্থায়ী একটা সমাধান হওয়া দরকার।

বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি আহসান হাবীব নেভী বলেন, ঘাটটিকে ডাস্টবিন হিসেবে ব্যবহার করা দুঃখজনক। এটি কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

বালিথুবা (প.) ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান জানান,এই স্থানটি পূর্বে অনেক পরিচ্ছন্ন ছিলো। কিন্তু উপজেলা প্রশাসন ছোট পরিসরে একটি ডাস্টবিন করার পর থেকেই এখানে ময়লা ফেলা শুরু হয়,ডাস্টবিনটি আয়তনে ছোট হওয়ার কারণেেএ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলি হরি জানান,ওই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান,বাজার ইজারাদার এবং ব্যবসায়ী কমিটির সঙ্গে কথা বলে জনসাধারণের যেভাবে মঙ্গল হয় আমি সে কাজটি করবো।

স্বাআলো/টিআই