প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ, মেম্বারকে পেটাল চেয়ারম্যান

ময়মনসিংহ ব্যুরো: এক ইউপি সদস্যকে মারপিট করার ঘটনায় সমালোচনার ঝড় বইছে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ৯ নং ভাংনামারী ইউনিয়নে। বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী ইউপি সদস্যকে মারপিট করেন সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মফিজুন নূর খোকা। খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ভুক্তভোগী ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হবি।

তিনি জানান, চেয়ারম্যান শহরে থাকেন এলাকায় আসেন কম। তাই একটি জন্মনিবন্ধনে স্বাক্ষর নেয়ার জন্য শহরের কলেজ রোডে চেয়ারম্যানের বাসায় গিয়েছিলাম। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান খোকা আমাকে জামার কলার চেপে ধরে মারপিট করেছেন।

এবিষয়ে আপনি কোন মামলা করবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে হাবিবুর রহমান বলেন, আমাদের ইউনিয়নের অন্যান্য মেম্বাররা দায়িত্ব নিয়েছেন এর বিচারের জন্য আগামীকাল বসবেন।

এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্ট ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান নূরে আলম সিদ্দিকী রিপন মেম্বারসহ অন্য ইউপি সদস্যরা। তিনি জানান, এমন ঘটনা লজ্জাজনক এবং কাণ্ডজ্ঞানহীন। আমরা এ ঘটনার বিচার দাবি করছি। ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আশরাফুল আলম লিটন বলেন, ইতোমধ্যে চেয়ারম্যান খোকা এলজিএসপির তিনটি প্রকল্পের প্রায় ৬২ লাখ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন। মূলত ওই ঘটনার জের ধরে চেয়ারম্যান মেম্বারকে মারপিট করেছেন।

৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আহসান হাবীব মালেক বলেন, চেয়ারম্যান ইউনিয়নের সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে অনিয়ম দুর্নীতি করছেন। প্রতিবাদ করলে তিনি ইউপি সদস্যদের মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার হুমকি দেন। এ বিষয়ে ভাংনামারী চেয়ারম্যান মফিজুন নূর খোকা বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা সম্পুর্ণ বানোয়াট এবং মিথ্যা।

স্বাআলো/এসএ