পাঁচ প্রধান শিক্ষককে শোকজ

ডেস্ক রিপোর্ট: বিনামূল্যের বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের টাকা আদায়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৫টি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে শোকজ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর। বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের টাকা আদায় করায় এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সে প্রেক্ষিতে ৫টি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। শিক্ষা অধিদফতরের সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, বই বিতরণে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছে জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার পালিশা উচ্চ বিদ্যালয়, পাটাদাহ উচ্চ বিদ্যালয়, শ্যামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়, ফুলজোড় রহিম জাফর উচ্চ বিদ্যালয় এবং কেন্দুয়া উপজেলার বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়। স্কুলগুলোর শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিনামূল্যের বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের টাকা আদায়ের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। সে প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান শিক্ষকদের শোকজ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন>>>  বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য বড় সুখবর

শিক্ষা অধিদফতর সূত্র জানায়, এ প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে বিনামূল্যের বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের টাকা আদায়ের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। বিষয়টি গত ৯ জানুয়ারি লিখিতভাবে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরকে জানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষা অধিদফতরের শিক্ষা কর্মকর্তা চন্দ্র শেখর হালদার স্বাক্ষরিত শোকজ নোটিশে প্রধান শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কেন আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে না তার জবাব তিন কর্মদিবসের মধ্যে পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে।

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বিনামূল্যের বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের টাকা আদায়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৫টি স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। জামালপুর জেলার এ পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের কমিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ময়মনসিংহ বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ।

মন্ত্রণালয় সূত্র আরো জানায়, এ প্রতিষ্ঠানগুলো ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের পাঠপুস্তক উৎসবে বই বিতরণে টাকা আদায় করেছে বলে গত ৫ জানুয়ারি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগকে জানিয়েছে জামালপুরের জেলা প্রশাসক। বই বিতরণে টাকা আদায়ের বিষয়টি আমলে নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তাই, এ প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ।

স্বাআলো/এসএ