চৌগাছার ভয়াবহ পিকনিক ট্রাজেডি

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি: আজ ২৫ জানুয়ারি যশোরের চৌগাছার ভয়াবহ পিকনিক ট্রাজেডি দিবস। ২০১৭ সালের ২৫ জানুয়ারি উপজেলার সুখপুকুরিয়া ইউনিয়নের বর্ণি-রামকৃষ্ণপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এদিন সন্ধ্যার পর পিকনিকে যাচ্ছিল উত্তরবঙ্গের ভিন্নজগত পিকনিক স্পটে। পিকনিকে যাওয়ার পথে স্কুল থেকে রওনা দিয়ে বাসটি মাত্র আধা ঘণ্টা চলার পর রাত ৯টার সময় চৌগাছা-পুড়াপাড়া সড়কের দানবাক্স নামক স্থানে ছাত্রীবাহী একটি পিকনিক বাস পার্শ্ববর্তী একটি তাল গাছে ধাক্কা দিয়ে সড়কের ওপরই উল্টে যায়।

আরো পড়ুন>>>  ঝিনাইদহে সন্তানকে ছাদ থেকে ছুড়ে হত্যা করলো বাবা

এ ঘটনায় স্কুলটির শিক্ষক জহুরুল ইসলাম, ছাত্রী বৃষ্টি আক্তার ও সুমাইয়া খাতুন, বাসটির সে সময়ের চালক মিলন (প্রকৃতপক্ষে হেলপার) এবং পথচারী মিলন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। আহত হন বাসটির অন্য ৪৬ যাত্রী। এর মধ্যে ছিলেন ৫ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা। আর বাকিরা ৬ষ্ট থেকে দশম শ্রেণির ছাত্রী। যাদের কয়েকজন এখনো পঙ্গু হয়ে বিছানায় পড়ে আছে। তাৎক্ষণিকভাবে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নার্গিস পারভীন চৌগাছার সকল স্কুল, কলেজের শিক্ষা সফর স্থগিত করে দেন।

দিবসটি পালনে আজ বর্ণি-রামকৃষ্ণপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দোয়া মাহফিলের আয়োজন থাকলেও স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনের কারণে সেটি পিছিয়ে ২৬ জানুয়ারি রবিবার অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক ও সেসময়ে আহত হয়ে দির্ঘক্ষণ জ্ঞান হারিয়ে থাকা আজম আশরাফুল। তিনি জানান সেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা সেদিন ওই বাসে থেকে বেঁচে যাওয়া আমরা ক’জন শিক্ষক ও ছাত্রীরা কোনদিন ভুলতে পারবোনা। সেই দুর্ঘটনায় অহত এক ছাত্রী এখনো পঙ্গু হয়ে বিছানায়ই পড়ে আছেন বলেও জানান তিনি।

স্বাআলো/এসএ