বৃদ্ধার কোলে নবজাতক রেখে পালিয়ে গেলেন মা

জেলা প্রতিনিধি, কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে তিনদিনের কন্যা শিশুকে এক বৃদ্ধার কোলে দিয়ে পালিয়ে গেছেন এক মা।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা শিশুটিকে উদ্ধার করে শুক্রবার রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদের তত্ত্বাবধানে দিয়েছেন। শিশুটি বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ভৈরব থানায় জিডি করেছে।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মধ্যবয়সী এক নারী ভৈরব বাসস্ট্যান্ডে শিশুটিকে নিয়ে বাস থেকে নামার পর পাশের একটি দোকানে যান। সেখানে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে এক বৃদ্ধা নারীর কাছে শিশুটিকে রেখে তিনি সটকে পড়েন। আধা ঘণ্টা থেকে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর ওই বৃদ্ধ নারী ঘটনাটি স্থানীয় আশরাফুল হোসেন নামে এক যুবককে জানান। পরে ওই যুবক ঘটনাটি পুলিশে জানান। এ নিয়ে থানায় জিডি করে পুলিশ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানায়। ঘটনা শুনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদের তত্ত্বাবধানে রাখতে বলেন।

আরো পড়ুন>>>রংপুরে নবজাতক উদ্ধার, দত্তক নিতে আদালতে আবেদন

ভৈরব থানা পুলিশের এসআই মহসীন জানান, আশরাফুল নামে এক যুবক শিশুটিকে থানায় নিয়ে আসে। তখন তিনি ঘটনা খুলে বললে এ বিষয়ে থানায় জিডি করার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ঘটনাটি অবহিত করে শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের তত্ত্বাবধানে দেয়া হয়।

ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা বলেন, আপাতত শিশুটি হাসপাতালে থাকবে। আগামীকাল অফিস খোলা হলে আদালতের অনুমতিক্রমে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তারা আগামীকাল কিশোরগঞ্জ আদালতে বিষয়টি জানাবেন।

তিনি বলেন, শিশুটিক দত্তক নিতে একজন ফোন দিয়েছিল, কিন্তু আদালতের অনুমতি ছাড়া আমরা দত্তক দিতে পারব না। আদালত যদি তাকে শিশুসদনে পাঠানোর আদেশ দেন সেই ব্যবস্থা করা হবে।

স্বাআলো/আরবিএ