৮ এসএসসি পরীক্ষার্থীর সঙ্গে জালিয়াতি, প্রধান শিক্ষকসহ বরখাস্ত ২

জেলা প্রতিনিধি, ফরিদপুর: রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও নম্বরপত্র জালিয়াতির অভিযোগে ফরিদপুরের চরভদ্রাসনের হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান ও আইসিটি শিক্ষক সোহেল রানাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে তাদের শোকজ করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার স্কুলটির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে আইসিটি শিক্ষক সোহেল রানাকে বরখাস্ত করা হয়। এর আগে গত ১ ফেব্রুয়ারি প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। অভিযোগ, রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও নম্বরপত্র জালিয়াতি করে স্কুলটির ৮ জন শিক্ষার্থীকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে দেননি এ দুই শিক্ষক।

আরো পড়ুন>>>  বঙ্গবন্ধু পরিবারের নামে ১৫ কলেজ জাতীয়করণের সিদ্ধান্ত

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি কে এম ওবায়দুল বারী দিপু খান জানান, এসএসসি পরীক্ষা দিতে না পারা ৭ শিক্ষার্থী প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান ও আইসিটি শিক্ষক সোহেল রানার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আসা অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৩০ জানুয়ারি বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা বসে। সভায় সহকারী প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ কামাল হেসেনকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বাক্ষরিত পৃথক চিঠিতে ১ ফেব্রয়ারি প্রধান শিক্ষককে ও ৪ ফেব্রুয়ারি আইসিটি শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়।  তাদেরকে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশর জবাব দিতেও বলা হয়েছে।

স্কুল সূত্র জানায়, হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৪৪ জন শিক্ষার্থীর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা ছিল। কিন্তু এ দুই শিক্ষকের প্রতারণা ও জালিয়াতির কারণে ৮ শিক্ষার্থীকে এসএসসি পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে পারে নি। তাই, স্কুলটির ৩৭ জন শিক্ষার্থী এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে।

স্বাআলো/এসএ