মাঠে মিললো সেই শিশুর গলা ও হাতকাটা লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জ কাশিয়ানী উপজেলার চাপ্তা রেল স্টেশন থেকে নিখোঁজ হয়েছিল ছয় বছরের শিশু সুমা। তার সন্ধানে সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে পরিবারের লোকজন। অবেশেষে গভীর রাতে একটি মাঠের মধ্যে শিশুটিকে পাওয়া গেলেও তার শরীরে ছিল না প্রাণ। দুর্বৃত্তরা তার গলা-হাত ও পায়ের রগ কেটে মাঠের মধ্যে তার লাশ ফেলে রেখে যায়।

গত বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের পরিত্যক্ত একটি জমি থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটিকে খুনে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

নিহত সুমা খানম কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল ইউনিয়নের চাপ্তা গ্রামের মিজান শেখের মেয়ে। সে চাপতা ২২ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।

আরো পড়ুন>>>গোপালগঞ্জে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

কাশিয়ানী থানার এসআই গনেশ বিশ্বাস জানান, বুধবার কাশিয়ানী উপজেলার চাপ্তা রেল স্টেশন থেকে নিখোঁজ হয় সুমা। এরপর থেকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার কোনো সন্ধান পায়নি পরিবারের লোকজন। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়।

কাশিয়ানী থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, শিশুটির গলা, হাত ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

স্বাআলো/আরবিএ