ডাকাত সন্দেহে বাগেরহাটে গণপিটুনিতে নিহত ১

জেলা প্রতিনিধি, বাগেরহাট: বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলা সদরে আজ সোমবার ভোররাতে গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত হয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ সে এক বাড়িতে ডাকাতি করে পালানোর সময় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ে।

এ সময় ডাকাতদের হামলায় মহিদুল হাওলাদার (৩৫) নামের এক গ্রামবাসী আহত হয়েছেন। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায়, কচুয়া উপজেলা সদরের বারুইপাড়া গ্রামের সোমেদ হাওলদারের বাড়িতে একদল ডাকাত দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। দুর্বৃত্তরা বাড়ির সবাইক অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ৭৫ হাজার টাকা, ৩ টি মোবাইল ফোন ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যাবার সময় প্রতিবেশী মহিদুল এসে এক যুবককে ধরে ফেলে চিৎকার দিলে ডাকাতরা তাকে বেধড়ক মারপিট করলেও মহিদুলের কাছ থেকে তাকে ছাড়াতে ব্যর্থ হয়। এ পর্যায়ে লোকজন ছুটে আসায় অন্য ডাকাতরা পালিয়ে যায়। এদিকে ধরাপড়া ওই ডাকাত গণপিটুনিতে মারা যায়।

আরো পড়ুন>>>বাগেরহাটে কলেজ ছাত্র হত্যাকারীদের বিচার দাবি

এ খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ডাকাত ও মহিদুলকে উদ্ধার করে কচুয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু ওই যুবককে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. দেবরাজ ।

কচুয়া থানার ওসি তদন্ত ইকবাল হোসেন জানান, ডাকাতি নয়, চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ে ওই যুবক গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে। তার নাম পরিচয় জানা যায়নি।