প্রাক-প্রাথমিকে ২৬ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগ

ডেস্ক রিপোর্ট: দুই বছর মেয়াদি প্রাক-প্রাথমিক স্তর চালু হতে যাচ্ছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ স্তরে চার বছরের বেশি বয়সের শিশুদের ভর্তি করা হবে। এছাড়া প্রাক-প্রাথমিক স্তরের জন্য সারা দেশে ২৬ হাজারের বেশি শিক্ষকের পদ সৃজন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ কার্যক্রম সম্পন্ন হলে পর্যায়ক্রমে সারা দেশের ৬৫ হাজারের বেশি বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। তার আগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকরা প্রাক-প্রাথমিক স্তরে ক্লাস নেবেন।

আরো পড়ুন>>>  শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমে নতুন নিয়ম

প্রথম পর্যায়ে পাইলটিং হিসেবে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় ৫ হাজারের মতো বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তর চালু হবে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।

আরো পড়ুন>>>  প্রাথমিকের শিক্ষকদের জন্য সুখবর

জানা যায়, প্রাক-প্রাথমিক স্তরের জন্য শিশুদের বিকাশের আলোকে কারিকুলাম, শিক্ষক নিয়োগ, টিচিং মেটারিয়াল ও অবকাঠামো তৈরি করা হবে। বর্তমানে দেশের কয়েকটি বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হলেও এ স্তরের শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়নি। এ জন্য নতুন করে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকের পদ সৃজন করা হচ্ছে। প্রথম পর্যায়ে সারা দেশে ২৬ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। দ্রুত পদ সৃজনের প্রস্তাব মন্ত্রিপরিষদে অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তর চালু করা হবে। প্রাক-প্রাথমিক স্তর চালু করতে আমরা একটি প্রস্তাব তৈরি করেছি। সেটি চলতি মাসের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর পাইলটিং হিসেবে দেশের ৫ হাজার বিদ্যালয়ে এটি চালু করা হবে। যেসব বিদ্যালয়ে অনুকূল অবকাঠামো রয়েছে সেখানে এটি চালু করা হবে। এ জন্য দেশের সকল বিদ্যালয়ের দুজন করে শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। পাইলটিং শেষে পর্যায়ক্রমে দেশের সকল বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তর খোলা হবে।

আরো পড়ুন>>>  সরকারি চাকরিতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির নিয়োগ: পিএসসির প্রস্তাব যাচাইয়ে কমিটি

সচিব আরো বলেন, প্রাক-প্রাথমিক স্তরের জন্য সারা দেশে ২৬ হাজারের বেশি শিক্ষকের পদ সৃজন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ কার্যক্রম সম্পন্ন হলে পর্যায়ক্রমে সারা দেশের ৬৫ হাজারের বেশি বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। তার আগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকরা প্রাক-প্রাথমিক স্তরে ক্লাস নেবেন।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, শিশুদের মেধা-মনন বিকাশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক স্তর চালু করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ স্তরে চার বা পাঁচ বছরের কম শিশুদের ভর্তি নেয়া হবে। এ সংক্রান্ত প্রস্তাবনা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে।

প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলে প্রথম পর্যায়ে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় মোট ৫ হাজার বিদ্যালয়ে এটি চালু করা হবে। দুই বছর মেয়াদি হবে এই কোর্স। প্রাক-প্রাথমিক পাসের পর প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি করা হবে।

স্বাআলো/এসএ