রত্নার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যা করে তৃতীয় স্বামী

জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা: ত্রিভূজ প্রেমের বলি হয়েছে গৃহবধূ ফারহানা আক্তার রত্না। শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। আর এই হত্যা কান্ডের জন্য তার দ্বিতীয় স্বামী খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার মালতিয়া গ্রামের বাসিন্দা মিজানুর রহমানের ওপর দায় চাপানো হয়। কিন্তু নিহত গৃহবধূ রত্নার বর্তমান স্বামী হাসিবুর রহমান সবুজ এ হত্যা কান্ডের দায় করে সাতক্ষীরার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান সোমবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনা প্রকাশ করেন।

পুলিশ সুপার জানান, তালা উপজেলা সদরের মোবারকপুরের ভাড়া বাড়িতে স্বামী সবুজের সাথে রত্না বসবাস করত।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে সবুজ তার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন জালিয়ে দেয়। এ ঘটনায় রত্নার পিতা মেয়ের দ্বিতীয় স্বামীসহ চারজনকে আসামি করে তালাথানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে ১৩ দিন পর রত্না মারা যায়। পুলিশের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে রত্নার বর্তমান স্বামী হাসিবুর রহমান সবুজ প্রকৃত অপরাধী। তার বাড়ি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার খাস মথুরা পুর গ্রামে।

স্বাআলো/টিআই