বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালনে প্রস্তুত গোপালগঞ্জ

জেলা প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালনের জন্য গোপালগঞ্জ এখন প্রস্তুত। ইতোমধ্যে দিনটি যথাযতভাবে পালনের জন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

এছাড়া অন্যান্য বিভাগ বিশেষ করে গণপূর্ত বিভাগ বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সের শোভাবর্ধনের জন্যও অন্যান্য যেসব কাজ করা দরকার তা শেষ করেছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ গোপালগঞ্জের প্রবেশ দ্বার থেকে টুঙ্গিপাড়া জাতির পিতার সমাধিসৌধ পর্যন্ত ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের বিভিন্ন স্থান ও গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া সড়কের বিভিন্ন স্থান নতুনভাবে সাজিয়েছেন। ফুলগাছসহ রাস্তার পাশ দিয়ে বিভিন্ন ধরনের গাছ লাগিয়ে শোভাবর্ধন করা হয়েছে।

আরো পড়ুন>>> শার্শায় ইতালিফেরত একজন হোম কোয়ারেনটাইনে

এছাড়া মুকসুদপুর মোড়, কাশিয়ানীর ভাটিয়াপাড়া মোড়, ওভার ব্রিজ, সদরের পুলিশ লাইনস্ মোড়, বেদগ্রাম মোড়, ঘোনাপাড়া মোড়, টুঙ্গিপাড়ার পাটগাতি মোড়সহ বিভিন্ন জাগায় ব্যাপকভাবে লাইটিং-এর ব্যবস্থা করা করা হয়েছে। এছাড়াও মাজার কমপ্লেক্স ও এর আশপাশের লাইটিং এর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার পক্ষ থেকে পৌরর মধ্যে রাস্তার পাশের ভবন, টিনের ঘর, বেড়া, ব্রিজ লাল-সবুজ রঙ করে পতাকার রঙে সাজিয়ে তুলেছে। এছাড়া আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা ঢাকা থেকে আসার পথে গোপালগঞ্জের প্রবেশ দ্বার মুকসুদপুর থেকে টুঙ্গিপাড়া পর্যন্ত ৮০ কিলোমিটার রাস্তার ওপর শত শত তোরণ নির্মাণ করেছেন।

সব মিলিয়ে গোপালগঞ্জ জেলায় এখন সাজ সাজ রব চলছে। পুরো গোপালগঞ্জই সেজেছে এক অনন্য সাজে। সবাই এখন ক্ষণ গণনার দিকে তাকিয়ে আছে, কখন আসবে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। কখন পর্দা উঠবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান মালার। সারা জাতি এদিন জাতির জনককে শ্রদ্ধা জানাতে অপেক্ষার প্রহর গুণছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার আসবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে শেষ হয়েছে সব ধরনের প্রস্তুতি। এ উপলক্ষে জেলায় নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তবে করোনাভাইরাসের কারণে জন্মদিনের অনুষ্ঠানকে সীমিত করা হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত শিশু সমাবেশ।

এদিন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করে শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে সশস্ত্র বাহিনী অনার গার্ড প্রদান করবেন।

রাষ্ট্রপতি ও বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে অপেক্ষায় রয়েছে নেতা-কর্মীরা। রাষ্ট্রীয় কর্মসূচির পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ।

গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে জেলাব্যাপী তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলার গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশ দ্বারগুলোতে তল্লাশি চৌকি বসানো হয়েছে। টুঙ্গিপাড়াসহ বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স কঠোর নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে। পুলিশসহ বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পোশাকে ও সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন করছেন।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা জানান, এই সময়ে যেহেতু দেশে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি আছে, তাই আমরা শিশুদেরকে ঝুঁকির বাইরে রাখতে চাই। এই মূহুর্তে শিশু সমাবেশ আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে সময় সুযোগ মতো আমরা এই অনুষ্ঠানটি করবো।

স্বাআলো/টিআই