রংপুরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু: গ্রেফতার ৬

রংপুর ব্যুরো: রংপুরের পীরগাছা উপজেলার অন্নানগর নয়াটারি গ্রামে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।  স্বামীর পরিবার আত্নহত্যা বললেও নিহতের ভাই দাবি করছেন তাকে হত্যার পর লাশ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখা হয়।

আজ শনিবার দুপুরে ওই গৃহবধুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পীরগাছা থানা পুলিশ শ্বশুড়-শ্বাশুড়ী, দেবরসহ ৬ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করলেও মামলা দায়েরের পর তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পুলিশ ও গ্রামবাসীরা জানান, রংপুর নগরীর তাজহাট দূর্গাপুর গ্রামের মেয়ে শাহিনা পারভীনের সাথে বিগত ৮ বছর পূর্বে পীরগাছা উপজেলার নয়াটারী গ্রামের মফিজুল হকের ছেলে সাজু মিয়ার সাথে বিয়ে হয়।  তাদের ৬ বছরের একটি মেয়ে  সন্তান রয়েছে।  ঘটনার দিন গত বৃহস্পতিবার রাতে স্বামী-স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়ে।  শুক্রবার ভোরে স্বামী সাজু মিয়া ঘুম থেকে জেগে স্ত্রীকে ঘরের তীরের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় এবং আত্নহত্যা করেছে বলে সকলকে জানিয়ে পালিয়ে যায়।

পীরগাছা থানা পুলিশ খবর পেয়ে শাহিনার লাশ উদ্ধার করে এবং আজ শনিবার দুপুরে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

আরো পড়ুন>>>রংপুরে হোম কোয়ারেন্টাইনে ১১০

নিহতের ভাই ইব্রাহিম মিয়া জানান, নিহতের স্বামী সাজু মিয়া জুয়া, মাদক এবং পরকীয়ায় আসক্ত। ঘটনার দিন রাতে এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার এক পর্যায়ে পরিবারের সহযোগিতায় শাহিনাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়।

পীরগাছা থানার তদন্ত ওসি আজিম উদ্দিন বলেন, নিহতের ভাই একটি মামলা দায়ের করেছে।  এ ঘটনায় আটক শ্বশুড় মফিজুল ইসলাম, শ্বাশুড়ী জরিনা বেগম, ভাই শামীম, জলিল, রিয়াজুল, ভাবি ময়না বেগমকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্বাআলো/এএম