কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে সর্দি, জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে একজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার পান্নু মিয়া (৫৮) নামে এক ব্যক্তি ঢাকায় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে মারা গেছেন। তিনি সর্দি জ্বর ও গলাব্যথায় আক্রান্ত ছিলেন বলে জানা গেছে৷

নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শহিদুল ইসলাম জানান, সোমবার বিকেলে সর্দি, জ্বর, কাশি ও প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে ওই ব্যক্তি নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। এ সময়ে তার মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সবকটি উপসর্গ থাকায় আমাদের রোগনিয়ন্ত্রণ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক হড়গোবিন্দ সরকার অনুপ তাকে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা দেন।

পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল ও তার অবস্থার অবনতি দেখে তাকে সন্ধ্যার পর ঢাকার উত্তরার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শহিদুল আরো জানান, মৃতের পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এছাড়া ৮২ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন বিভাগে গত তিনদিন ধরে ভর্তি রয়েছেন।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দিন মঙ্গলবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় মৃত ব্যক্তির বাড়িতে ও তার আশপাশের যাতায়াতকারী কয়েকটি পরিবারকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানার ওসি মোস্তফা কামাল বলেন, মৃত্যুর সংবাদের সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ ওই এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে নির্দিষ্ট করে দেয়া কয়েকটি পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টাইন থাকার সব ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে। সেখানে লালনিশান ও ব্যানার টানিয়ে দেয়া হয়েছে।

স্বাআলো/এসএ