‘বীরযোদ্ধা’ ডা. মঈনকে স্যালুট জানালেন মাশরাফি

স্পোর্টস ডেস্ক: করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে করতে করোনায় আক্রান্ত হয়েই না ফেরার দেশে চলে গিয়েছেন ‘গরিবের চিকিৎসক’ খ্যাত ডা. মঈন উদ্দিন। টানা ৯ দিন করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করে বুধবার ভোরে মারা যান সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের এই সহকারী অধ্যাপক।

তার এ মৃত্যুতে শোকাহত পুরো দেশ। করোনার বিপক্ষে প্রথম সারির যোদ্ধাই ছিলেন ডা. মঈন উদ্দিন। দেশের ক্রান্তিকালে নিজেকে বিলিয়ে দেয়ায় ডা. মঈন উদ্দিনকে ‘বীরযোদ্ধা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান সংসদ সদস্য (নড়াইল-২) মাশরাফি বিন মর্তুজা।

দেশবাসীর মতো মঈন উদ্দিনের মৃত্যু ছুঁয়ে মাশরাফিরও হৃদয়। মহৎপ্রাণ এ ডাক্তারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের সঠিক ভাষা জানা নেই মাশরাফির। তাই তিনি এ বীরযোদ্ধাকে স্যালুটের মাধ্যমেই শ্রদ্ধা ও সম্মান জানিয়েছেন।

নিজের ফেসবুক পেজে সবিস্তরে মাশরাফি লিখেছেন, সবাইকে শোকে ভাসিয়ে চলে গেলেন এক মহৎ প্রাণ ডাক্তার! করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গতকাল সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক মানবিক ডাঃ মোঃ মঈন উদ্দিন চলে গেলেন না ফেরার দেশে! তিনি ছিলেন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফ্রন্ট লাইনের যোদ্ধা। তাঁর এই মৃত্যু হৃদয় বিদীর্ণ করার মত।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ছোবলে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশও আক্রান্ত। দেশের এই মহাক্রান্তিকালে ডা. মঈন উদ্দিন ছিলেন দেশের মানুষের জন্য আত্মোৎসর্গীকৃত। মৃত্যুর আগমুহূর্ত পর্যন্ত একজন মানবসেবী হিসেবে মানুষের সেবা করে গেছেন তিনি। নিজের জীবনের সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে তিনি চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন।

মানুষের প্রতি, দেশের প্রতি তার এই আত্মত্যাগ শব্দ-বাক্যে প্রকাশের মত নয়। মানবতার জয়গান গাওয়া ক্রান্তিকালের এই যোদ্ধাকে নিশ্চয় গোটা জাতি আজীবন পরম শ্রদ্ধায় স্মরণ করবে।

আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। সবশেষে আমি এই বীরযোদ্ধাকে জানাচ্ছি- “স্যালুট”।

স্বাআলো/এসএ