সাতক্ষীরায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে দুইজনের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরায় জ্বর ও শ্বাস কষ্টসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা পশ্চিম পাড়ায় আব্দুর রহিম নামে এক নৈশপ্রহরী ও আশাশুনির কাকবাশিয়া গ্রামের রেজাউল করিম নামে এক কলেজ শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে।

তাদের দুই জনেরই নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরের কাছে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগ।

জেলায় একদিনে দুই জনের মৃত্যুর ঘটনায় জেলাব্যাপী আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ করে দেশের লকডাউন করা জেলা থেকে প্রতিদিন ট্রাকে ট্রাকে লুকিয়ে এ জেলা শত শত মানুষ প্রবেশ করছে, তাতে জেলাবাসীর মধ্যে উৎকন্ঠা বেড়ে গেছে।

মৃত নৈশপ্রহরী আব্দুর রহিম তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা পশ্চিম পাড়ার ওমর আলী গাজীর ছেলে ও কলেজ শিক্ষক রেজাউল করিম আশাশুনির কাকবাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শওকত বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য তাদের দু জনেরই নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরের কাছে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

আশাশুনি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা জানান, স্বাস্থ্যকর্মীদের নির্দেশনা ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের তত্বাবধানে জানাযা শেষে কলেজ শিক্ষক রেজাউল করিমের মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। তিনি আরো জানান, ওই কলেজ শিক্ষকের বাড়িটি বর্তমানে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। একই সাথে তার সহ পরিবারের ৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

তালা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন জানান, আপাতত ওই নৈশ প্রহরীর বাড়ির সবাই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্বাআলো/এসএ