বেতন বুঝে পেলেন সাকিবের ফার্মের ১৫০ শ্রমিক

জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা: বিক্ষোভের পর ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের কাঁকড়া ফার্মের শ্রমিকদের মজুরি পরিশোধ করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালীনি ইউনিয়নের দাতিনাখালী এলাকায় অবস্থিত খামারের ১৫০ শ্রমিকের মধ্যে বকেয়া বেতন পরিশোধ করা হয়।

বুড়িগোয়ালীনি ইউনিয়নে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান গড়ে তোলেন সাকিব এগ্রো ফার্ম লিমিটেড নামে কাঁকড়া হ্যাচারী। মূলত সুন্দরবন থেকে আহরিত কাঁকড়া প্রক্রিয়াজাত করে বিদেশে রফতানি করা হয় এ ফার্ম থেকে।

এর আগে বকেয়া বেতনের দাবিতে সোমবার সকালে ফার্মের শ্রমিকরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। যদিও সাকিব আল হাসান তার ফেসবুক পেজে জানিয়েছেন, বকেয়া বেতনের বাকি থাকার বিষয়টি তিনি অবগত ছিলেন না।

জানা গেছে, ১৫০ শ্রমিকের মাঝে ১৯ লাখ ৫৩ হাজার ৯০ টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফার্মের জেনারেল ম্যানেজার সালাউদ্দীন।

বুড়িগোয়ালীনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ভবতোষ কুমার মন্ডল জানান, সাকিবের খামারের শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করে দেয়া হয়েছে। বেতন পেয়ে শ্রমিকরা সাকিব আল হাসানের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

শ্রমিকদের টাকা বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন সাকিব আল হাসানের কাঁকড়া খামার প্রকল্পের তত্ত্বাবধায়ক ক্রিকেটার সগীর হোসেন পাভেল, জেনারেল ম্যানেজার সালাউদ্দিন, সাতক্ষীরা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ নাসেরুল হক, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সদস্য সচিব মুশফিকুর রহমান মিল্টন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য খন্দকার আরিফ হাসান প্রিন্সসহ ফার্মের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

সাতক্ষীরা জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সদস্য সচিব মুশফিকুর রহমান মিল্টন জানান, সাকিব আল হাসানের নির্দেশনায় ঢাকা থেকে টাকাগুলো পাঠানো হয়। এরপর একত্রে গিয়ে শ্রমিকদের মাঝে হাতে হাতে পাওনা টাকা পরিশোধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, মূলত শ্রমিকদের কারও এক মাস, কারও দুই মাস বা কারও তিন মাস এমনভাবে বেতনগুলো বাকি ছিল।

সাকিব আল হাসান এগ্রো ফার্ম লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার সালাউদ্দীন বলেন, ১৫০ জন শ্রমিকের বকেয়া বেতন সবটুকুই পরিশোধ করা হয়েছে। সাকিব ভাই শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের জন্য টাকা পাঠিয়েছেন।

স্বাআলো/এসএ