দুলাভাইয়ের ঘরে শ্যালিকার লাশ

জেলা প্রতিনিধি, শেরপুর: শেরপুরের শ্রীবরদীতে সুখি (১৮) নামে এক কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার দুপুরে উপজেলার রাণীশিমূল ইউনিয়নের ভায়াডাঙ্গা আসান্দিপাড়া এলাকার দুলাভাইয়ের বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় কিশোরীর দুলাভাইসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত সুখি জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর গ্রামের মৃত জয়নালের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাণীশিমূল ইউনিয়নের ভায়াডাঙ্গা আসান্দিপাড়া গ্রামের শাহজাহানের ছেলে সালাত মিয়ার সঙ্গে সুখির বড় বোন রিমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর সালাত তার শ্যালিকা সুখির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং বিয়ে করেছে বলে এলাকাবাসীকে জানায়। ঘটনার এক সপ্তাহ আগে সুখি সালাতের বাড়িতে আসে। এতে সালাতের বাড়িতে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত।

শনিবার সালাতের বাড়িতে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার পর সালাত বাড়ি ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করলে এলাকাবাসী টের পেয়ে সালাতকে ধরে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ সালাতের বাড়িতে গিয়ে তার ঘর থেকে সুখির মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যপারে শ্রীবরদী থানার ওসি মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, নিহতের দুলাভাই সালাতসহ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে এবং থানায় মামলা দায়ের চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর হয়েছে।

স্বাআলো/এসএ