মেয়র ও ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া : আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে কুমারখালী পৌরসভার মেয়রসহ সাত কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে সরকারি ত্রাণ বিতরণের একটি অভিযোগ  আমলে নিয়েছেন। বিষয়টি  তদন্তপূর্বক আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতের বিচারক এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত গরিব, অসহায়দের মাঝে সহায়তা হিসাবে সরকারি ত্রাণ প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি করে ডাল ও আলু এবং একটি সাবান বিতরণে অনিয়মের অভিযোগের বিষয়টি স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তা আদালতের দৃষ্টিগোচর হয় এবং পরবর্তীতে আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে মামলা করেন।

পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডে বরাদ্দকৃত ১হাজার ৩৫০ প্যাকেট ত্রাণ কুমারখালীর মেয়রের নিকট থেকে কাউন্সিলররা গ্রহণ করেন। পরে এসব ত্রাণ তালিকাভুক্তদের মধ্যে বিতরণ না করে দেয়া হয় অন্যদের। এ ঘটনায় পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখার গোপন অনুসন্ধানে উঠে আসে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের এ চিত্র।

পৌরসভার মেয়র ছামসুজ্জামান অরুন জানান, ত্রাণ বিতরণে কোনো অনিয়ম করা হয়নি। তবে বিষয়টি যেহেতু আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে, তাই তদন্তপূর্বক প্রকৃত সত্য করে আদালতেই তা নিষ্পত্তি হবে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ওসি মজিবুর রহমান বলেন, আদালতের আদেশ এখনো হাতে পাইনি। আদেশ পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্বাআলো/কে