রাস্তায় পড়ে ছিল লিঙ্গ কর্তন করা রক্তাক্ত যুবক

জেলা প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও: স্ত্রীর সাথে ঝগড়া করে ভাইয়ের খোঁজে ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার খালেক (৩৫) নামে এক যুবক ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলায় এক আত্মীয়ের বাসায় এসেছিলেন। গত কয়েকদিন ধরে রাণীশংকৈল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে উদভ্রান্তের মতো ঘুরে বেড়াতে দেখেছে উপজেলাবাসী।
এরমধ্যে বুধবার সকালে তাকে রাস্তার পাশে লিঙ্গ কর্তনসহ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী। পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে রাণীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে  ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। বর্তমানে যুবকটি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

যুবকটি মানসিক ভারসাম্যহীন উল্লেখ করে রাণীশংকৈল থানার ওসি (তদন্ত) খায়রুল আনাম ডন জানান, তাকে বেশ কয়েকদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরি করতে দেখেছেন মানুষ। আজ তিনি নিজেই নিজের লিঙ্গ কর্তন করে রাস্তার পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিলেন। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

তিনি আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে তার নাম খালেক এবং তার বাড়ি ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার নন্দলালপুরে। এছাড়া আর কিছুই বলতে পারেননি তিনি।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই যুবক জানান,  তার বাড়ি ফরিদপুর, তার মাথায় সমস্য আছে, বউয়ের সাথে রাগ করে এসেছেন, ভাইকে খুঁজতে এসেছেন।