একদিনে দেশে ৪৭ জনের প্রাণহানি

ডেস্ক রিপোর্ট : চলছে করোনাভাইরাস মহামারি, এর মধ্যে এলো ঘূর্ণিঝড় আম্ফান, সাথে সাথে সড়ক দুর্ঘটনা এই তিনে মিলে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে অন্তত ৪৭ জনের মৃত্যু সংবাদ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার এক দিনেই করোনা মারা গেছেন ২২ জন, ঝূর্ণিঝড় আম্পানে ১২ ও সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনাভাইরাস: করোনাভাইরাসে আজও সর্বোচ্চ শনাক্ত ও মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরো সর্বোচ্চ ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা ৪০৮ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৭৭২ জন। মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮৫১১ জনে। সুস্থ হয়েছেন ৩৯৫ জন। সর্বমোট সুস্থ হয়েছেন ৫৬০২ জন।

সড়ক দুর্ঘটনা: গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার দুবলাগাড়িতে আজ সকালে রোডবোঝাই ট্রাক উল্টে অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন।

পলাশবাড়ী থানার ওসি জানান, সকাল ৮টার দিকে ঢাকা থেকে রংপুরগামী রোডবোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়।

ঘূর্ণিঝড় আম্পান: ঘূর্ণিঝড় আম্পান আঘাত হানার পর দেশের উপকূলীয় অঞ্চল থেকে বৃহস্পতিবার ১২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

নিহতরা হলেন- পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার সৈয়দ শাহ আলম (৫৫), গলাচিপা উপজেলার রাশেদ (৫), ভোলার চরফ্যাশনের মো. সিদ্দিক (৭২), বোরহানউদ্দিনের রফিকুল ইসলাম (৩৫), পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার শাহজাহান মোল্লা (৫৫) ও গুলেনুর বেগম (৭০), ইন্দুরকানীর শাহ আলম (৫০), যশোরের চৌগাছার রাবেয়া (১৩) ও ক্ষ্যান্ত বেগম (৪৫), ঝিনাইদহের নাদিয়া বেগম (৫৫), চট্টগ্রামের সন্দ্বীপের সালাহউদ্দিন (১৬) এবং সাতক্ষীরায় একজন মারা গেছেন।

আবহাওয়া অফিসের সর্বশেষ বুলেটিন অনুসারে, ঘূর্ণিঝড় আম্পান দুর্বল হতে থাকায় বিপদ সংকেত নামিয়ে মোংলা, পায়রা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

বুলেটিনে বলা হয়, ঝিনাইদহ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করা ঘূর্ণিঝড় আম্পান আরও উত্তর দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে গভীর স্থল নিম্নচাপ আকারে সকাল ৯টায় রাজশাহী ও পাবনা অঞ্চলে অবস্থান করছিল। এটি আরো উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে বৃষ্টি ঝরিয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হতে পারে।

স্বাআলো/এসএ