সুপার সাইক্লোন আম্ফানের তাণ্ডবে যশোরে ১২ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর: সুপার সাইক্লোন আম্ফানের তাণ্ডব চলাকালে গাছ চাপা পড়ে যশোরে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে মণিরামপুরে সবথেকে বেশি পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বুধবার রাতে গাছ চাপা পড়ে জেলার শার্শা, চৌগাছা ও বাঘারপাড়া উপজেলায় আরো সাত জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
জানা যায়, স্মরণকালের ভয়াবহ এই ঘূর্ণিঝড়ে পুরো জেলা জুড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হওয়া তাণ্ডব রাত বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে। এতে ছোট বড় বড় বড় গাছ উপরে পড়ে। অনেক কাঁচা, আধা পকা বাড়ি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
তান্ডব চলাকালে মণিরামপুরের পারখাজুরা গ্রামের জবেদ আলী মোড়ল (৫৫) ও তার ছেলে ইছা মোড়ল (২২) নিজ ঘরে গাছ চাপা পড়ে মারা যান। একইভাবে বুধবার রাতে মারা যান ওই গ্রামের ঋষিপাড়ার খোকন দাস (৬০) ও তার স্ত্রী রঙ্গ দাসী (৫৫), দায়পড়ার জাবেদ আলীর স্ত্রী জয়গুন বেগম (৪৮)।

এছাড়া গাছচাপা পড়ে চৌগাছা পৌরসভার হুদো এলাকার ওয়াজেদ হোসেনের স্ত্রী চায়না বেগম (৪৫) ও মেয়ে রাবেয়া খাতুন (১৩) মারা গেছেন। ঝড়ে ঘরের উপর গাছ ভেঙে পড়লে তাদের মৃত্যু হয়।

শার্শা উপজেলার মালোপাড়ার সুশীল বিশ্বাসের ছেলে গোপাল চন্দ্র বিশ্বাস, গোগা পশ্চিমপাড়ার শাহজাহানের স্ত্রী ময়না খাতুন (৪০) ও বাগআঁচড়া জামতলা এলাকার আব্দুল গফুর পলাশের ছেলে মুক্তার আলী (৬৫) এবং বাঘারপাড়া উপজেলার দরাজহাট বুদোপাড়া এলাকার সাত্তার মোল্লার স্ত্রী ডলি খাতুন (৪৫) মারা গেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে যশোরের বিভিন্ন উপজেলার ১২ জন নিহত হয়েছেন। নিহত ১২ জনের নাম-পরিচয়সহ ক্ষয়ক্ষতির তথ্য জানিয়ে যশোর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ঢাকায় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।