চিকিৎসার নামে তরুণীকে ধর্ষণ করলো কবিরাজ

জেলা প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় এক মানসিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে (২২) চিকিৎসার নামে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কবিরাজের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত কবিরাজ আব্দুর রহিম প্রামাণিককে (৫৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার গভীর রাতে ফতুল্লার কাশিপুর হাজীপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর বাবা কবিরাজের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেছেন।

গ্রেফতার আব্দুর রহিম প্রামাণিক সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থানার রানীখোলা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ফতুল্লার কাশিপুর হাজীপাড়া শাহজাহান মোল্লার বাড়ির ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার এসআই শুভ আহম্মেদ জানান, ভুয়া কবিরাজ আব্দুর রহিমের সঙ্গে ওই তরুণীর বাবার দীর্ঘ ৮/৯ বছর ধরে বন্ধুত্বের সম্পর্ক। সেই সুবাধে কবিরাজ তাদের বাড়িতে নিয়মিত আসা যাওয়া করতো। মানসিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ঝাড়ফুঁক করার জন্য বুধবার রাত ৯টায় তাদের বাড়িতে যান কবিরাজ আব্দুর রহিম। তখন তরুণীকে ঘরে রেখে সবাইকে ঘর থেকে বের করে দরজা বন্ধ করে দেন তিনি।

চিকিৎসার কথা বলে মানসিক প্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে কৌশলে ধর্ষণ করেন কবিরাজ। এ সময় ওই তরুণীর বড় ভাই জানালা দিয়ে উঁকি বিষয়টি দেখে চিৎকার করলে কবিরাজ পালিয়ে যান। পরে থানায় অভিযোগ করলে রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে আব্দুর রহিমকে গ্রেফতার করে।

স্বাআলো/ডিএম